অস্ট্রেলীয় কবি জুডিথ রাইট- এর একটি কবিতা । মোশতাক আহমদ

  •  
  •  
  •  
  •  

জুডিথ রাইট অস্ট্রেলিয়ান কবি ( ১৯১৫-২০০০) । পরিবেশবিজ্ঞানী ও আদিবাসীদের ভূমি অধিকার নিয়ে কাজ করেছেন, পরিবেশবাদী আন্দোলন করেছেন। ইংল্যান্ডে পড়াশুনা করেছেন শৈশবে। পরে অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে আসেন । দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে অংশ নিয়েছেন। কবিতার বই The Moving Image, Woman to Man, The Gateway, The Two Fires, Birds, The Other Half, Magpies, Shadow, Hunting Snake ইত্যাদি। ছোটগল্পও লিখেছেন। ১৯৯৮ সালে তিনি অস্ট্রেলিয়ার প্রখ্যাত ‘লিভিং ন্যাশনাল ট্রেজার আ্যওয়ার্ড’ এবং ইংল্যান্ডের ‘কুইন্স গোল্ড মেডাল ফর পোয়েট্রি’ লাভ করেন।

পুরুষের প্রতি নারী, অনাগত সন্তান বিষয়ে

সে তো এক অন্ধ রাত্রিচর, পরিচয়হীন –
নিরাকার বীজ আমার জরায়ুর অন্ধকারে,
পুনরুত্থান দিবসের ক্ষণ গুনছে দিনের আলো আসবে কবে-
ততক্ষণ সে নীরব খরগোশের ভীরু পলাতক ছায়া
যদিও অদেখা পার্থিব আলো তার সহজ কল্পনা।

সে তো মোটে আর দশটা শিশুর মুখ নয় ;
নাম কি দেবে তার অনাগত সংসারে;
তুমি আমি জানিও না তাকে ভাল করে তবু।
পারস্পরিক গোয়েন্দাগিরির মতো খোঁজ করেছে সেও,
আমাদের আলিঙ্গনে বাঁধা তৃতীয় মানুষ।

তোমার বাহুর পেশল বীজ থাকল তার দেহে,
আমার স্তনের পেলব পরিধি ধারন করবে সে,
ক্লিশে হলেও বলি তাকে আমাদের নয়নের মনি।
গোলাপের জটিল ভাঁজ নিয়ে অপাপ সুন্দর
স্বপ্নের বিশালতায় রক্তের বুনো বৃক্ষ।

সে এক নতুন সৃজন, আমাদের- স্রষ্টা সকল সুখের;
নিজেই কত না প্রশ্ন সে, উত্তরপত্রও সেই জাদুকর;
অন্ধকার গর্ভে ঢুঁ মারছে দিগবিদিক
সমুদ্র সৈকতের সার্চ লাইটের ঝলক।
বড্ড ভয় করছে, বাছা আসবে, জাপটে ধরো এ বেলা!

ভূমিকা ও অনুবাদ
মোশতাক আহমদ
কবি, গদ্যকার ও সমালোচক।
বাংলাদেশ।