আনকোরা ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে বাংলাদেশের হোয়াইটওয়াশ

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশান্তিকা ডেস্ক: টানা দ্বিতীয় টেস্টে হারের স্বাদ নিয়ে হোয়াইট ওয়াস হলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। বাংলাদেশে সফররত ওয়েস্ট ইন্ডিজের বি টীমের সাথেই হলো এই পরাজয়। ওয়ানডে এবং টেস্ট সিরিজ খেলতে দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে বাংলাদেশে আসে উইন্ডিজ ক্রিকেট দল। দলটির বড় সুপারস্টারদের কেউ করোনা শঙ্কায়, কেউ ব্যক্তিগত কারণে আসেননি। তাই এই দলটি নিয়ে খুব হতাশ ছিলেন টাইগার ক্যাপ্টেন মুমিনুল হক এমনকী নির্বাচক হাবিবুল বাশার। কিন্তু সেই আনকোরা দলের কাছেই টেস্টে ধবলধোলাই হলো বাংলাদেশ।

বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিয়ে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে জয় তুলে নিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সফরকারিদের দেওয়া সিরিজে সমতা আনতে ২৩১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ২১৩ রানে সবকটি উইকেট হারিয়ে হোয়াইটওয়াশ হয় বাংলাদেশ। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫০ রান করেন তামিম ইকবাল। ম্যাচ অব দ্য ম্যাচ রাহকিম কর্ণওয়াল। ম্যান অব দ্য সিরিজ এনক্রুমা বনার।

ইত্তেফাক জানায়, ক্রিকেটের প্ল্যানিং স্ট্র্যাটেজি কোনো কিছুই ঠিক ছিলো না উল্লেখ করে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হোসেন পাপন বলেছেন, ক্রিকেটারদের এপ্রোচ দেখে মনে হয়নি তারা টেস্ট খেলতে নেমেছে। দল হারার কারণ হিসেবে কোচ ও দলের অধিনায়কের কাছে জবাব চাওয়া হবে বলেও জানান বিসিবি সভাপতি। সেই সঙ্গে দলে বড় ধরনের পরিবর্তন আসবে বলেও ঘোষণা দেন বিসিবি প্রধান। রবিবার ( ১৪ ফেব্রুয়ারি) ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টে ধবলধোলাই হওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। পাপন অভিযোগ তুলেন, সাকিবের বিকল্প হিসেবে মাহমুদউল্লাহর নাম থাকলেও তাকে দলে নেয়নি টিম ম্যানেজম্যান্ট।

চট্টগ্রাম টেস্টে ৩ উইকেটে হারের পর ঢাকা টেস্ট চার দিনেই জিতে নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাদের গোছানো ক্রিকেটের বিপরীতে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের সেই পুরনো ওয়ানডে মানসিকতা দেখা গেছে।
ইত্তেফাক জানায়, উইন্ডিজ দল ঘোষণার পর গত ৩০ ডিসেম্বর অধিনায়ক মুমিনুল হক গণমাধ্যমে হতাশা প্রকাশ করে বলেছিলেন, ‘সবাই আশাই করে যে নিয়মিত দলটাই আসবে। শুধু আমি না, সবাই এটাই আশা করেছিল। দেশে খেললে আমাদের প্রত্যাশা থাকে আমরা ভালো করব। আর টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে আমরা অবশ্যই জয়ের জন্যই যাব। সেটা এই দল না, ওদের মূল দল এলেও আমাদের মানসিকতা একই থাকত।’
তখন জাতীয় দলের অন্যতম নির্বাচক হাবিবুল বাশারও বলেছিলেন, ‘একটু দুঃখ লাগল। করোনার কারণে যদি না আসে তাহলে তো কিছু বলতে পারবেন না। কিন্তু ওরা সব জায়গায় খেলছে, বাংলাদেশে অন্যান্য জায়গা থেকে কোভিড-১৯ ভালো ব্যবস্থাপনা করেছি, নিয়ন্ত্রণ করেছি। দুটি টুর্নামেন্ট করেছি সফলভাবে। সব জায়গায়ই তো মানুষ মারা যাচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশে এলে কোভিডের সমস্যা হয়, এই যুক্তিটা বুঝে ওঠা কঠিন।’

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments