আমি সবসময় মানুষের সেবা করতে চাই: জাহিদ মজুমদার (হ্যারিসন ওয়ার্ড)

  •  
  •  
  •  
  •  

 282 views

মিতা চৌধুরী, মেলবোর্ন: আসছে ২৩ অক্টোবরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ভিক্টোরিয়া রাজ্যের স্থানীয় সরকার নির্বাচন। ইতোমধ্যে সরগরম হয়ে উঠেছে ভিক্টোরিয়ার আগামী স্থানীয় সরকার নির্বাচন ও নির্বাচনী প্রচারণা। আগামী ৬ অক্টোবর থেকে ৮ অক্টোবর পর্যন্ত ডাকযোগে ব্যালট পেপার পাঠনো হবে সকল ভোটারদের নিকট। ২৩ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬টায় ভোট গণনা শেষ হবে। আর নির্বাচনের পূর্ণাঙ্গ ফলাফল ঘোষণা করা হবে ১৩ নভম্বের। এইবার আসন্ন এই স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রথমবারের মত উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাদেশী অস্ট্রেলিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ভিক্টোরিয়ার স্থানীয় সরকার নির্বাচন নিয়ে আমাদের ধারাবাহিক প্রতিবেদনে আজ আমাদের সঙ্গে আছেন জনাব জাহিদ মজুমদার। তিনি ভিক্টোরিয়ার বাংলাদেশীদের বৃহৎ সামাজিক সংগঠন ভিক্টোরিয়ান বাংলাদেশী কমিউনিটি ফাউন্ডেশনের (VBCF) বর্তমান সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন এবং সাবেক কমিউনিটি ওয়েলফেয়ার সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন উইন্ডহ্যাম সিটি কাউন্সিলের হ্যারিসন ওয়ার্ড থেকে। উল্লেখ্য, এই ওয়ার্ড থেকেই সর্বোচ্চ সংখ্যক বাংলাদেশী প্রার্থী দাঁড়িয়েছেন এই স্থানীয় সরকার নির্বাচনে । জাহিদ মজুমদারের কাছ থেকে আজ শুনবো এই স্থানীয় সরকার নির্বাচনে তার প্রতিদ্বন্দ্বিতা ও পরিকল্পনা নিয়ে কিছু কথা।

প্রশান্তিকা:  জনাব জাহিদ মজুমদার, ধন্যবাদ প্রশান্তিকাকে সময় দেয়ার জন্য। প্রথমেই আপনার নিজের সম্পর্কে আমরা কিছু জানতে চাই।
জাহিদ মজুমদার:
ধন্যবাদ আপনাকে এবং প্ৰশান্তিকাকেও। আমি জাহিদ মজুমদার, ভিক্টোরিয়া ষ্ট্রীট, ট্রুগানিনা(Truganina), ভিক্টোরিয়া-৩০২৯ এর বাসিন্দা। আমার স্ত্রী রুমানা ইসলাম, দুই ছেলে রুসাফ, রাইয়ানকে নিয়ে আমাদের ছোট্ট সুন্দর সংসার। আমার স্ত্রী রুমানা ইসলাম ট্রুগানিনা পি-৯(Truganina P-9) স্কুলের একজন শিক্ষিকা। আমি বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করেছি। গত ২০০৬ সাল থেকে অষ্ট্রেলিয়ায় বসবাস করছি। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে মাষ্টার্স ডিগ্রী অর্জন করে শুরু থেকেই আজ অবধি এসজিএস (SGS) অস্ট্রেলিয়াতে কর্মরত আছি। আমি প্রতিষ্ঠানটিতে অডিটর সার্ভেয়ার হিসাবে কর্মরত আছি। পাশাপাশি আমি নিজেকে বিভিন্ন জনকল্যাণমুলক কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত রেখেছি। আমি স্বেচ্ছাসেবক হিসাবে বিভিন্নসময়ে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি। গত ১২ বছর ধরে সক্রিয়ভাবে উইন্ডহ্যামের বৃহত্তর কমিউনিটির জন্য কাজ করছি। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত আছি। কোভিড-১৯ এ আমি আমার সাধ্যমত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি। বর্তমানে আমি ভিবিসিএফ ( VBCF) ,ভিক্টোরিয়ান বাংলাদেশি কমিউনিটি ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্বপালন করে যাচ্ছি।

প্রশান্তিকা: এই স্থানিয় সরকার নির্বাচনে আপনার প্রতিদ্বন্দ্বিতার কারন?
জাহিদ মজুমদার: আমি সবসময়ই চেয়েছি মানুষের সেবা করার জন্য। সমাজকর্মী হিসাবে তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করছি। আমি সবসময় মনে করি স্থানীয় সরকার নির্বাচনে নির্বাচিত হলে আমি আমার প্রজ্ঞা, নিষ্ঠা, পরিশ্রমকে কাজে লাগিয়ে আরো বৃহৎ পরিসরে মানুষের সেবা করতে পারব, যা আমার আজীবনের লালিত স্বপ্ন। বাংলাদেশী কমিউনিটিকে মেইনস্ট্রিম লিডারশিপে সংযুক্ত করার মাধ্যমে উপকৃত করা একটা বড় উদ্দেশ্য I আমাদের মধ্যে যথেষ্ঠ সম্বাবনাময়ী এবং ভালো নেতৃর্ত্ব দানকারী অনেক প্রতিভাবান লোক রয়েছেন যারা আমাদের কমিউনিটির মুখ উজ্জ্বল করবে এবং আমি আশা করি অচিরেই আমরা সেই লক্ষ্যে উপনীত হতে পারবো, শুধু দরকার একটা সম্মিলিত এবং যুগোপযোগী প্রচেষ্টা।

প্রশান্তিকা:একজন সমাজ কর্মী হিসাবে আপনার মূল উৎসাহ কি?
জাহিদ মজুমদার: সমাজকর্মী হিসাবে আমার মূল উৎসাহ হলো মানুষের ভালবাসা। ভিক্টোরিয়ান বাংলাদেশি কমিউনিটি ফাউন্ডেশনে(VBCF) সাধারন সম্পাদক হিসাবে কাজ করতে গিয়ে আমি মানুষের যে সমর্থন আর ভালোবাসা পেয়েছি তাই আমাকে উৎসাহ যুগিয়েছে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ নেবার। গত ১২ বছর ধরে সক্রীয়ভাবে বৃহৎ কমিউনিটির সাথে কাজ করতে গিয়ে আমি দেখেছি সমস্যা এবং সম্ভাবনাগুলো কোথায় । সামাজিক দায়বদ্ধতা এবং মানুষের প্রতি ভালবাসাই আমাকে উৎসাহ যুগিয়েছে। দীর্ঘ দিন কমুনিটির জন্য কাজ করার সুবাদে মানুষের সাথে যে একটা আত্মিক বন্ধন সৃষ্টি হয়েছে সেটাই আমাকে বিরাট প্রেরণা জুগিয়েছে আরো সামনের দিকে অগ্রসর হয়ে কমুনিটির জন্য বৃহত্তর পরিসরে অবদান রাখার জন্য।

মেলবোর্নের উইন্ডহ্যাম কাউন্সিলের হ্যারিসন ওয়ার্ডের একটি বাড়ির আঙিনায় জাহিদ মজুমদারের নির্বাচনী পোস্টার।

প্রশান্তিকা: আপনি নিজেকে কেন একজন যোগ্য প্রার্থী মনে করছেন?
জাহিদ মজুমদার: আমি পরিশ্রমী, আত্মবিশ্বাসী, ন্যায়পরায়ন, সত্যনিষ্ঠ, দায়িত্বশীল একজন মানুষ। আমার জনগনের জন্য রয়েছে অগাধ ভালবাসা। আমি সব মানুষের সাথে সমানভাবে মিশে যেতে পারি। সোশ্যাল ওয়ার্ক করতে গিয়ে আমি দেখেছি এখানকার মানুষের চাহিদা কি, অভিযোগ কি বা সমস্যা কি। আমি মনে করি একজন কাউন্সিলরের বড় দায়িত্ব হলো কমুনিটির জন্য স্ট্রং এডভোকেসি করার যোগ্যতা অর্জন করা, আর এই এডভোকেসি করতে হলে তাকে অবশই ভালো ভোকাল হতে হবে যাতে করে কমুনিটির সাথে সম্পর্কটা নিবিড় এবং স্ট্রং হয়I এই দিক বিবেচনা করলে আমি নিজেকে অত্যন্ত আশাবাদী মনে করি এবং নিজের উপর ১০০% আত্মবিশ্বাস আছে আমি যোগ্য প্রার্থী হিসাবে কমিউনিটিকে নেতৃত্ব দিতে পারবো। তাই আমি মনে করি আমি হতে পারব হ্যারিসনের জনগনের কন্ঠ।

প্রশান্তিকা:  আপনার নির্বাচনী অঙ্গীকার সম্পর্কে একটু বলুন।
জাহিদ মজুমদার: আমার পরিশ্রম, সততা ও নিষ্ঠাকে কাজে লাগিয়ে
▪ আমি কোভিড-১৯ উত্তর সহায়তা প্রদানসহ কাউন্সিল রেট কমানোর উদ্দ্যোগ নেব।
▪ স্থানীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে সহায়তা করবো যাতে আরো কাজের সুযোগ সৃষ্টি হয়।
▪ প্রবীন বা বয়োবৃদ্ধদের এবং গার্হস্থ সহিংসতায় ( domestic violence) আক্রান্তদের সহায়তা প্রদান করবো।
▪ কারিগরী দক্ষতা অর্জনে যুব সমাজকে সহায়তা প্রদান করব।
▪ উইন্ডহ্যাম সিটি কাউন্সিল, বিশেষত হ্যারিসন ওয়ার্ডে ট্যুরিজমের রয়েছে অপার সম্ভাবনা। বহু সংস্কৃতির মিলন ঘটিয়ে আমি কম্যুউনিটি হাব, লাইব্রেরি, ক্রীড়া, অবসর কেন্দ্র ( leisure centre) এর সংখ্যা বাড়াতে চাই।
▪ পরিবেশবান্ধব অবকাঠামো নির্মানে সহায়তা করবো যেখানে কার্বন ফুটপ্রিন্ট কম থাকবে ।
▪ রেলওয়ে ষ্টেশনে আরো বেশি গাড়ী পাকিং সুবিধা বাড়াব, নতুন বাস রুট এবং আরো অতিরিক্ত বাস সার্ভিস চালু করবো।

প্রশান্তিকা: জনাব জাহিদ মজুমদার আপনার স্ট্রেংথ কি?
জাহিদ মজুমদার: নেতৃত্ব, বিচক্ষনতা, জ্ঞান, প র্যবেক্ষনক্ষমতা, দূরদর্শিতা, দানশীলতা, কার্যকরী শ্রোতা , আমি মনে করি এগুলোই আমার স্ট্রেংথ।
প্রশান্তিকা:কোন বিষয়গুলোকে চ্যালেঞ্জ মনে করছেন?
জাহিদ মজুমদার: কোভিড-১৯ সারা বিশ্বের অর্থনীতিতে প্রভাব ফেলেছে। আমরাও এর বাইরে নই। তবে জনগন সাথে নিয়ে আমরা সব চ্যালেন্জকে মোকাবেলা করতে পারবো একসাথে।

প্রশান্তিকা:যদি আপনি নির্বাচিত হন তবে আপনি প্রথম কোন ইস্যুগুলোতে কাজ করবেন?
জাহিদ মজুমদার: আমি জনগনকে সাথে নিয়ে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবো, রাস্তাঘাট নির্মান ও উন্নয়ন, অধিক পাবলিক ট্রান্সপোর্ট সংযোজন, অধিক কর্মসংস্থানের এবং ট্যুরিসম হাব গড়ে তোলার জন্য এ্যাডভোকেসি করব। বিশেষ করে পোস্ট পেন্ডেমিক ক্রাইসিস উত্তরণের জন্য দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা হাতে নিবো যাতে করে লোকাল বিসনেস, লোকাল জবস এন্ড ইকোনমি স্ট্যাবল থাকে।

প্রশান্তিকা: সবশেষে আপনার নির্বাচনী এলাকার জনগনের উদ্দেশ্যে কিছু বলুন।
জাহিদ মজুমদার: আমি হ্যারিসন ওয়ার্ডকে একটি উন্নত এবং শান্তিপূর্ণ, বাসযোগ্য ওয়ার্ডের রোল মডেল হিসাবে দাঁড় করাতে চাই। আমি আপনাদেরকে সাথে নিয়ে একসাথে কাজ করতে চাই। আপনাদের সহায়তায় আমি আরও জনসেবামূলক কাজে নিজেকে উৎসর্গ করতে চাই। আপনারা আমার শক্তি ও প্রেরণার উৎস। অনুগ্রহ করে আমাকে ১ নম্বরে আপনাদের মূল্যবান ভোটটি দিলে আমি আপনাদের আশা ও আকাঙ্খার প্রতিক হয়ে কাজ করতে পারব। ”Together we can make Wyndham a more healthy and liveable community.”

প্রশান্তিকা: জনাব জাহিদ মজুমদার আবারো অনেক ধন্যবাদ প্রশান্তিকাকে সময় দেয়ার জন্য। প্রশান্তিকার পক্ষ থেকে আগামী দিনগুলোর জন্য থেকে রইলো শুভকামনা।
জাহিদ মজুমদার:
আপনাকে এবং প্ৰশান্তিকাকেও অনেক ধন্যবাদ, সেই সঙ্গে উইন্ডহ্যাম সিটির সকল বাসিন্দাকে আমার আন্তরিক শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ।

0 0 vote
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments