করোনায় বাংলাদেশে নতুন দুইজন আক্রান্ত আকাশপথে চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

  •  
  •  
  •  
  •  

 110 views

প্রতীক ইজাজ, ঢাকা থেকে: দেশে আরও দুজন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বিদেশ থেকে আসা এ দুজনকে সরকার আইসোলেশনে রেখেছিল। গতকাল শনিবার তাদের দুজনের মধ্যেই রোগটির উপসর্গ দেখা দেয়। পরে রাতে মিন্টো রোডের রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক নতুন আক্রান্তের তথ্য জানান।
এর ফলে দেশে করোনা আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়ালো পাঁচজন। প্রথমে যে তিনজন আক্রান্ত হয়েছিলেন, তাদের মধ্যে দুজন গত বুধবার সেরে উঠেছেন। একজন ইতিমধ্যে বাড়ি ফিরে গেছেন। অন্যজনের বাড়ির লোকজন কোয়ারেন্টাইনে থাকায় এখনো হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তৃতীয় ব্যক্তির একটি পরীক্ষা করা হয়েছে, তাতে রেজাল্ট নেগেটিভ এসেছে। আরও ২৪ ঘণ্টা পরে আরেকটি পরীক্ষা করা হবে। তাতে যদি রেজাল্ট নেগেটিভ আসে, তাহলে তাকেও ছেড়ে দেওয়া হবে। এদের দুজন ইতালিফেরত এবং অন্যজন তাদের একজনের স্বজন। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এমন প্রেক্ষাপটে গত শনিবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল,  করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিনজনের সবাই সুস্থ হয়ে যাওয়ায় দেশেএখন আর কোনো রোগী নেই। কিন্তু সে রাতেই নতুন করে দুইজনের শরীরে করোনার উপসর্গ মেলে।
নতুন আক্রান্তের পাশাপাশি গত শনিবার করোনার সর্বোচ্চ প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়া  ইতালি থেকে দুই দফায় ২০১ জন দেশে ফেরায় নতুন করে উদ্বেগ দেখা দেয়। এমনকি আজ রবিবার ইতালি থেকে আরও ১৫৫ জন দেশে ফিরেছেন।
এমন পরিস্থিতিতে দেশে করোনা মোকাবিলায় গত শনিবার রাতে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় জরুরি সংবাদ সম্মেলন করে সরকার। সম্মেলন থেকে যুক্তরাজ্য ও তুরস্ক ছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়নের সব দেশের সঙ্গে আকাশপথে বাংলাদেশের যোগাযোগ বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়। সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন,  করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) সংক্রমণের কারণে যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়নের সব দেশের কোনো উড়োজাহাজ বাংলাদেশে আসবে না। ইউরোপ থেকে বাংলাদেশে আসা ফ্লাইট বন্ধের এই নিষেধাজ্ঞা আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। এ ছাড়া বাংলাদেশ যেসব দেশের নাগরিকদের অন অ্যারাইভাল বা আগমনী ভিসা দিয়ে থাকে, সেগুলোও আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। তবে পণ্যবাহী কার্গো বিমান চলাচল অব্যাহত থাকবে। এর আগে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় গণভবনে এ নিয়ে আলোচনার পর প্রধানমন্ত্রী এই নিদের্শনা দেন বলে সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো জানান, আজ রবিবার নয়াদিল্লি সময় বিকেল ৫টায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে কৌশল নির্ধারণের জন্য ভিডিও কনফারেন্সে বসছেন সার্ক নেতারা। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আহ্বানে সাড়া দিয়ে নেতারা এই কনফারেন্সে বসতে রাজি হয়েছেন। দক্ষিণ এশিয়ায় করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে সম্মিলিত উদ্যোগ নেওয়ার জন্য গত শুক্রবার টুইটারে ভিডিও কনফারেন্সের জন্য সার্ক নেতাদের আহ্বান জানান মোদি।

নতুন আক্রান্তরা বিদেশ ফেরত: সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, দুজন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। তারা দুজনই বিদেশফেরত। তাদের আইসোলেশনে রাখা হয়েছিল। পরে গত শনিবার পরীক্ষায় তাদের শরীরে রোগের উপসর্গ দেখা দেয়। তাদের একজন জার্মানি ও অপরজন ইতালিফেরত।

ইতালী ফেরত বাংলাদেশী

ইতালিফেরত ১৪২ অবশেষে হোম কোয়ারেন্টাইনে : গত শনিবার প্রথম দফায় ইতালি থেকে ফেরা ১৪২ জনকে প্রথমে রাজধানীর আশকোনা হজক্যাম্পে বিশেষ কোয়ারেন্টাইনে রাখা হলেও রাতে তাদের নিজ নিজ বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। তিনি বলেন, এদের কারও মধ্যে উপসর্গ নেই। সবাই সুস্থ। তা ছাড়া তারা সবাই ইতালিতে কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। তাদের কাছে স্বাস্থ্য সনদ রয়েছে। সুতরাং তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।
অবশ্য তাদের সরকারি কোয়ারেন্টাইনে রাখা নিয়ে বেশ বিশৃঙ্খলা হয়। এই ১৪২ জনকে প্রাথমিকভাবে বিমানবন্দর থেকে নিয়ে যাওয়া হয় আশকোনা হজ ক্যাম্পে। তবে হজ ক্যাম্পের পরিবেশ ‘মানসম্মত না হওয়ায়’ কেউ থাকতে চাচ্ছিলেন না। এ নিয়ে অস্থিরতা চলে ক্যাম্পে। বেশ কজনকে হজ ক্যাম্পের গেটের বাইরেও বিক্ষোভ করতে দেখা যায়। তাদের অভিযোগ, কোয়ারেন্টাইন বলতে যা বোঝায় সেটা মানা হচ্ছে না হজ ক্যাম্পে। একটা বড় হলরুমে মেঝেতে পাশাপাশি মেট বিছিয়ে গাদাগাদি করে রাখা হয়েছে তাদের। এরচেয়ে বাড়িতে গিয়েও থাকা ভালো। এরপর সেখানে থাকা ইতালিফেরত যাত্রীদের নিরাপত্তা ও নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে সেখানে সেনাসদস্যদের মোতায়েন করা হয় বলে জানিয়েছেন আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবদুল্লাহ ইবনে জায়েদ।

রাতেই গাজীপুরে ৫৯ জনকে: এমন পরিস্থিতির মধ্যে গত শনিবার মধ্যরাতে আরো ৫৯ জন ইতালি থেকে ফেরেন। রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে তাদের সরাসরি বিশেষ গাড়িতে গাজীপুর সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে পাঠানো হয়। সেখানে তাদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে। দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকারিভাবে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করা হয়েছে বলে জানান এই আইইডিসিআর পরিচালক।

আজ ফিরলেন ১৫৫ বাংলাদেশি: আজ ইতালি থেকে আরও ১৫৫ বাংলাদেশি দেশে এসেছেন। সকালে এমিরেটস এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে দুবাই হয়ে ইতালি থেকে ঢাকায় পৌঁছান তারা। প্রাথমিক পরীক্ষার পর তাদের আশকোনা হজ ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে তাদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে।

পদ্মায় আরো যা বললেন মন্ত্রীরা : করোনাভাইরাসের বিশেষ পরিপ্রেক্ষিতে সংবাদ সম্মেলনে সরকারের বিভিন্ন সিদ্ধান্তের কথা তুলে ধরেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, যেসব দেশ আমাদের দেশ থেকে যাতায়াত বন্ধ করেছে আমরা তাদের জন্য একই ব্যবস্থা নিয়েছি। দেশগুলোর মধ্যে নেপাল, সৌদি, কাতার, কুয়েতসহ অন্যান্য দেশ রয়েছে। তবে কেবল যুক্তরাজ্য থেকে যাত্রীরা আসা-যাওয়া করতে পারবেন বলে জানান মন্ত্রী।
আবদুল মোমেন বলেন, অনেক দেশই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ার কারণে যাত্রী প্রবেশ করতে দিচ্ছে না। আমরাও যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের বাকি দেশগুলোর সঙ্গে যাতায়াত বন্ধ করে দেব। আর  যেসব দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে গেছে, সেসব দেশ থেকে কেউ বাংলাদেশে এলে তাদের বাধ্যতামূলকভাবে দুই সপ্তাহের জন্য কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আমাদের কাছে প্রস্তাব দিয়েছিলেন, সার্কভুক্ত দেশগুলোকে একসঙ্গে নিয়ে করোনাভাইরাস মোকাবিলা করতে হবে। তার প্রস্তাবে সায় দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামীকাল (আজ) বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সার্কভুক্ত সাতটি দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান এবং পাকিস্তানের স্বাস্থ্য উপদেষ্টার মধ্যে এ নিয়ে আলোচনা হবে।
ভারতে যাতায়াতের বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশ থেকে ভারতে যাতায়াত বন্ধ। আমরাও একই আইন বলবৎ করব।’ এর আগে গতকাল পদ্মায় দিনব্যাপী বৈঠক করে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেন বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্তরা।
প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশে ফেরা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘ইতালির মিলানে দায়িত্বরত কনসাল ইকবাল আহমেদের বাবা মারা গেছেন দেশে। কিন্তু তিনি দেশে আসেননি এই বিশেষ পরিস্থিতি চিন্তা করে। তবে প্রতিমন্ত্রী জানান, পণ্যবাহী কার্গো বিমান চলাচল অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রবাসীদের বাংলাদেশের নাগরিকদের কথা চিন্তা করে ধৈর্য ধরতে বলেছেন।
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এক থেকে ৪০ বছরের মানুষদের আক্রান্তের সম্ভাবনা খুব কম। এ কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে চাই না। তবে কেউ যদি স্বেচ্ছায় প্রতিষ্ঠানে না যেতে চায়, তাহলে  সেটা তার বিষয়।’

বিচ্ছিন্ন হচ্ছে বিশ্ব: করোনার কারণে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও আকাশপথে চলাচলের ওপর একের পর এক বিধিনিষেধ আনছে। ফলে ক্রমেই বিচ্ছিন্ন হচ্ছে বিশ্ব। কুয়েত, কাতার, সৌদি আরব, ভারত-এই চার দেশ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিমান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। তবে এসব দেশ শুধু বাংলাদেশের সঙ্গে নয় অন্যান্য দেশের উড়োজাহাজ চলাচলও বন্ধ করেছে। আর নেপাল অন অ্যারাইভাল ভিসা বন্ধ করায় বিমানের ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। এমনকি সৌদি আরবের সিদ্ধান্তের কারণে ১৫ মার্চ থেকে দুই সপ্তাহের জন্য রিয়াদ, দাম্মাম, জেদ্দা ও মদিনায় বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট বন্ধ থাকবে।
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোকাব্বির হোসেন এই প্রতিবেদককে বলেন, বর্তমানে মাত্র যাওয়া-আসা মিলিয়ে ৬৮টি ফ্লাইট চলমান রয়েছে। ধীরে ধীরে আন্তর্জাতিক রুট বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। এতে চাপ বাড়ছে বিমানের ওপর। আরও বেশকিছু রুট বন্ধ হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন এই কর্মকর্তা।
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জনসংযোগ কর্মকর্তা তাহেরা খন্দকার বলেন, আবুধাবি, দুবাই, মাস্কাট, থাইল্যান্ড, লন্ডন, ম্যানচেস্টার, কুয়ালালামপুর, সিঙ্গাপুর, হংকংসহ বেশকিছু রুট আমাদের চলমান আছে। তবে এসব দেশের সঙ্গে চলাচলে ধীরে ধীরে ফ্লাইটের সংখ্যা কমে আসছে।
এ ছাড়া করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গত শনিবার আরও পাঁচটি রুটের ১১টি ফ্লাইট বাতিল করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। তার মধ্যে দুটি আন্তর্জাতিক ও তিনটি দেশি রুট আছে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক  মো. মোকাব্বির হোসেন জানান, ঢাকা-যশোর, ঢাকা-রাজশাহী ও ঢাকা-সৈয়দপুর এবং বিদেশি ঢাকা-কাঠমান্ডু ও ঢাকা-ব্যাংকক ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। ১৫ মার্চ ঢাকা-যশোর, ১৫ ও ১৬ মার্চ ঢাকা-রাজশাহী এবং ১৬ মার্চ ঢাকা-সৈয়দপুর রুটের ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। তাছাড়া ২৪, ২৯, ৩০ এবং ৩১ মার্চের ঢাকা-কাঠমান্ডু, ১৬, ২৩ ও ৩০ মার্চ ঢাকা-ব্যাংকক ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। ১৯ ও ২২ মার্চ ঢাকা-কাঠমান্ডু ফ্লাইট পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী ছেড়ে যাবে।

দিল্লি থেকে ফেরা  ২৩ বাংলাদেশি সুস্থ : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে দিল্লিতে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার পর দেশে ফিরেছেন ২৩ বাংলাদেশি। গত শনিবার বিকেল ৩টার দিকে তাদের বহনকারী এয়ার ইন্ডিগোর একটি ফ্লাইট বিমানবন্দরে অবতরণ করে। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বিমানবাহিনীর একটি বিশেষ বিমানে অন্য ভারতীয়দের সঙ্গে ২৩ বাংলাদেশিকে উহান থেকে ফিরিয়ে আনা হয়। এরপর তাদের দিল্লিতে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। তাদের প্রয়োজনীয় মেডিকেল চেকআপ করা হয় এবং তাদের কারও শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া যায়নি। এই কারণে তাদের দেশে আসতে দেওয়া হয়।

0 0 vote
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments