কাউন্সিলর সুমন সাহার শারদীয় দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা 

785

বাংলাদেশ বা পশ্চিমবঙ্গে এখন শরৎকাল। শরতের নীলাকাশ আর কেবল বিদায় নেয়া বর্ষার সবুজ জমিনে জ্যোতির্ময়ী, অপরূপা, সুখদায়িনী আবার দু:খীনি মা দুর্গা আসছে।
এই প্রবাসে এখন শরৎ নয়, বসন্তকালও যাই যাই করছে। তবুও অস্ট্রেলিয়া বাসী বাঙ্গালী, বিদেশী, ধর্ম, বর্ণ, জাতি নির্বিশেষে আপনাদের সকলকে আমার শারদীয় শুভেচ্ছা।

তিথি অনুযায়ী ১৫ অক্টোবর দুর্গাপূজা শুরু এবং ১৯ অক্টোবর বিজয়া দশমীর মধ্য দিয়েই শেষ। কিন্তু শুরুর দিনটি সোমবার কর্মদিন থাকায় অধিকাংশ আয়োজক উইকেন্ড থেকে অর্থাৎ ১২ অক্টোবর শুক্রবার থেকেই পূজার আয়োজন করছে। আমি জানতে পেরেছি ক্যাম্বেলটাউনের মিন্টোতে তিথি অনুযায়ী সোমবারেই পূজার মন্ডপ বসবে।
এবছর সিডনি তথা নিউ সাউথ ওয়েলসে ১৩টি পূজা মন্ডপ তৈরি হচ্ছে। আমি আশা করি এতে করে সিডনির পূর্ব থেকে পশ্চিম এবং উত্তর থেকে দক্ষিণ সকল এলাকার বাঙ্গালী ও ভক্তরা আরাধনা এবং অর্চনা করতে পারবে।
আমার নিজের কাউন্সিল এলাকা ওয়েন্টওর্থভিল ছাড়াও বিভিন্ন মন্ডপে আমার যাওয়ার ইচ্ছে রয়েছে। বরাবরের মতো এবারও অস্ট্রেলিয়ান প্রিমিয়ার, মন্ত্রী, এমপি, মেয়র, কাউন্সিলর বা আপামর জনগণ এই পূজায় অতিথি হয়ে আসবেন। আমি হিন্দু ধর্মাবলম্বী ছাড়াও সবাইকে তাদের বন্ধু বান্ধব সহ পূজায় আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। সার্বজনীন দুর্গা মায়ের ডাকে আপনারা ধর্ম, বর্ণ, জাতি নির্বিশেষে অংশ নিয়ে সমাজের কৃস্টি ও কালচারাল ডাইভারসিটি উপভোগ করুন। we need to make an inclusive multicultural community.  এতে করে সভ্যতা ও সংস্কৃতির আদান প্রদান হবে এবং এ সংক্রান্ত কোন বিরূপ ধারণা থাকলে তা দূরীভূত হবে।

সংঘাতময় এ পৃথিবীতে যে দানব ও অসূর মাথা চারা দিয়ে উঠেছে মা দুর্গার আগমনে সেটা বিলোপ হবে। মা তার সন্তানদের যেমন উদ্দীপ্ত ও প্রাণীত করেন তেমনি আতঙ্ক থেকে উদ্ধারও করেন তার অভয়বাণীতে।
সকলকে আবারও শারদীয় শুভেচ্ছা।