কার্ল স্যান্ডবার্গ ও তাঁর কবিতা । মোশতাক আহমদ

  •  
  •  
  •  
  •  

 152 views

কার্ল স্যান্ডবার্গ ও তাঁর কবিতা
অনুবাদ- মোশতাক আহমদ

তিনবার পুলিতজার পুরস্কার পাওয়া আমেরিকান কবি কার্ল স্যান্ডবার্গ একজন ঔপন্যাসিক, ইতিহাসবিদ এবং লোকসাহিত্য বিশেষজ্ঞও ছিলেন। তিনি জন্মেছিলেন ১৮৭৮ এ, ইলিনয়েসে। ১৯১৩ সালে স্পেনের বিরুদ্ধে আমেরিকার যুদ্ধে তিনি ছিলেন একজন সৈনিক। এরপর শিকাগোতে সাংবাদিকতা করেন ও কবিতা পত্রিকায় কবিতা প্রকাশিত হতে থাকে। আমেরিকার শ্রমিক জীবন নিয়ে লেখা তাঁর মুক্ত ছন্দের কবিতাগুলো খুব জনপ্রিয়। আমেরিকান জীবনযাপনকে কবিতায় চমৎকার ভাবে তুলে আনবার ক্ষেত্রে তিনি ছিলেন অপ্রতিদ্বন্দ্বী। জীবদ্দশায় তিনি শিকাগো পোয়েমস (১৯১৬), কর্ন হাস্কারস ( ১৯১৮) এবং স্মোক এন্ড দা স্টিল কাব্যের জন্য সমধিক প্রসিদ্ধ ছিলেন। ১৯৬৭ সালে কবি মারা যান।

ফিরে আসবে
কার্ল স্যান্ডবার্গ

ভালবাসার কিছু ছাড় নিয়ে তুমি ফিরবে
শিশিরের বেদনায়, বৃষ্টির আবেগে,
সূর্যের আলোয় মাখামাখি হয়ে ফিরবে
তোমার কন্ঠে জড়িয়ে যাবে বাতাসের মাতাল সঙ্গীত
পাহাড়ি বুনোফুলের মতো বসবে এসে তুমি।

নৈবেদ্য ও প্রত্যাখ্যান
কার্ল স্যান্ডবার্গ

আমি তোমাকে ভালবাসতেই পারতাম
বৃষ্টিকে যেমন শুকনো কন্দ ভালবাসে।
আমি তোমাকে আলিঙ্গন করতেই পারতাম
গাছের শাখা হাওয়ায় যেরকম জড়াতে চায়
আন্দোলিত পাপড়িগুলো ।

সমুদ্রের শাদা ফেনাগুলোর দিকে
অবনত হৃদয়ে ফিরো
নিঃসঙ্গতমা!

ভালোবাসা এক বোকা নক্ষত্র।

রাতের আকাশে
তারার অক্ষরে নাম লিখেও
আমাকে ভুলে যাবে একদিন।

ভালোবাসা এক বোকার স্বর্গ।

গান গেয়েছিলাম
কার্ল স্যান্ডবার্গ

চাঁদের জন্য তোমার জন্য গেয়েছিলাম গান
আমাকে শুধু রাখল মনে একাদশীর চাঁদ

আমার বাঁধনহারা পাগল হৃদয় মুক্তকণ্ঠ গান
মনে রাখল কবির প্রতি চাঁদের সদয় দান

কুয়াশা
কার্ল স্যান্ডবার্গ

বেড়ালের পায়ে
কুয়াশা নামে

তাকায় অপলকে
নগর বন্দর আর
নীরব খিলানের দিকে
তারপর ফিরে চলে

হাড়গোড়
কার্ল স্যান্ডবার্গ

আমাকে সমাহিত করে দাও সাগরে
ভেজা লবনের দেশে
লাঙ্গলের নাগালের বাইরে যেন থাকে আমার হাড়গোর
কেউ আর পারবে না এই চোয়াল চেপে জবানবন্দি নিতে।
আয়ত সবুজ চোখের দানো খুবলে খাবে দু চোখ।

চারপাশে রঙিন মাছের লুকোচুরি খেলা,
বজ্র বিদ্যুৎ গাইবে আমার গান
ভেজা লবনের দেশে
সমাহিত করো — সাগরে।

আমাদের নরক
কার্ল স্যান্ডবার্গ

মিলটন খুলে দিয়েছেন তাঁর নরক
আমরা দেখেছি স্বর্গহীন প্রান্তর।
দান্তেও করেছেন একই কাজ।
দুটো নরকই স্পেশাল।
একটা মিলটনের, অপরটি দান্তের।
… তুমি যদি খুলে দাও তোমার নরক
আমার নরকের চাবিও পাবে তুমি।

এ দুটোও হবে জেনো স্পেশাল নরক
আমরা দেখাব এই দুনিয়ায়
নরকের কত পদ!
তোমারটা এক নরক, আমারটা অন্য রকম।

মোশতাক আহমদ
কবি, গদ্যকার ও সমালোচক। বাংলাদেশ। 

0 0 vote
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments