কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দু’দিন ব্যাপি ভার্চুয়াল সম্মেলনঃ পঞ্চাশে বাংলাদেশ

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশান্তিকা ডেস্কঃ পঞ্চাশে বাংলাদেশ: অনিশ্চিত যাত্রা থেকে উন্নয়নের রোল মডেল শীর্ষক ২ দিনব্যাপী ভার্চুয়াল সম্মেলন শুরু হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। জুম এবং ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী এই সম্মেলন সম্প্রচারিত হবে ৭ ও ৮ অক্টোবরে।

আয়োজক: অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড ইউনিভার্সিটি, আর এম আইটি ইউনিভার্সিটি, কুইন্সল্যান্ড ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজী, গ্রীফিথ ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অফ সাউদার্ন কুইন্সল্যান্ড, ম্যাকুয়ারী ইউনিভার্সিটি, সুগার রিসার্চ অস্ট্রেলিয়া ও কুইন্সল্যান্ড হেলথ এর সিনিয়র শিক্ষক ও গবেষকবৃন্দ এবং সামাজিক সংগঠন আমরা কজন-দি লিগ্যাসি অফ বঙ্গবন্ধু অস্ট্রেলিয়া ইনক।

উদ্বোধনী ভাষণ: খ্যাতিমান অর্থনীতিবিদ রেহমান সোবহান: “বঙ্গবন্ধু ও বাঙ্গালী জাতিসত্বা: নেতৃত্ব ও কৌশল”।
বিশেষ পর্ব: যুক্তরাজ্যের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বনামধন্য অর্থনীতিবিদ প্রফেসর স্যার পার্থ দাশগুপ্তের নেতৃত্বে “বিশ্ব মানচিত্রে বাংলাদেশের যথাস্থাপন” থিমের উপর গোলটেবিল আলোচনা। এই প্যানেলে আরও থাকছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অর্থনীতিবিদ ও পরিবেশ বিজ্ঞানী প্রফেসর এডওয়ার্ড বারবিয়ার (কোলারাডো স্টেট ইউনিভার্সিটি, যুক্তরাষ্ট্র), প্রফেসর কার্ল ফোক (বেইয়ার ইনস্টিটিউট, সুইডেন) এবং প্রফেসর শুনসুকি মানাগী (কিয়ুশু ইউনিভার্সিটি, জাপান)।

বক্তাঃ
ডঃ তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বীর বিক্রম, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার-এর প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানী, বিদ্যুৎ ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা (২০০৯ থেকে অদ্যাবধি)। জ্বালানী খাতের বৈপ্লবিক পরিবর্তনের অন্যতম রূপকার।
ডঃ শামসুল আলম, পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। জুলাই ২০০৯ – জুন ২০২১ পর্যন্ত পরিকল্পনা কমিশন সদস্য (সিনিয়র সচিব)।
প্রফেসর রেহমান সোবহান, চেয়ারম্যান-সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ তত্ত্বাবধায়ক সরকার (১৯৯১)এর উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, প্রাক্তন মহাপরিচালক বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ।
প্রফেসর মোহাম্মদ ফরাশউদ্দিন, প্রধান উপদেষ্টা, ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ।অর্থনীতিবিদ ও বাংলাদেশ ব্যাংক-এর সাবেক গভর্ণর।
প্রফেসর মুহাম্মদ জাফর ইকবাল, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়র-এর কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং-এর অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক। বাংলাদেশে বিজ্ঞান ও গণিত অলিম্পিয়াডকে জনপ্রিয় করার পথিকৃৎ।
প্রফেসর মোহাম্মদ শহীদউল্লাহ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়র-এর নিয়োন্যাটোলজী বিভাগের চেয়ারম্যান এবং কোভিড-১৯ জাতীয় পরামর্শক কমিটির সভাপতি।
জনাব ফারুক হাসান, সভাপতি-বিজিএমইএ, ম্যানেজিং ডিরেক্টর-জায়ান্ট গ্রুপ এবং ইন্টারন্যাশনাল অ্যাপারেল ফেডারেশন এর বোর্ড সদস্য।
প্রফেসর স্যার পার্থ দাশগুপ্ত, যুক্তরাষ্ট্রের কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়র-এর অর্থনীতি বিভাগের ফ্রাঙ্ক রামসে ইমারিটাস প্রফেসর। বহুপুরস্কার ও সম্মানে ভূষিত।অতিসম্প্রতি (২০২১) কিউ ইন্টারন্যাশনাল পদকপ্রাপ্ত।
প্রফেসর এডওয়ার্ড বারবিয়ার, যুক্তরাষ্ট্রের কোলারাডো বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের ডিস্টিংগুইস্ট প্রফেসর এবং সিনিয়র স্কলার গ্লোবাল এনভায়রনমেন্টাল সাসটেইনেবিলিটি স্কুল। বৈশ্বিক পরিবেশ ও টেকসই উন্নয়নে অন্যতম প্রভাবশালী গবেষক।
প্রফেসর কার্ল ফোক, সুইডেনের বেইয়ার ইনস্টিটিউট অফ ইকোলজিক্যাল ইকোনোমিক্স এর পরিচালক এবং স্টকহোম রেজিলিয়েন্স সেন্টার এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। সোশ্যাল-ইকোলজিক্যাল সিস্টেম এর উপর গবেষণায় বিশ্বব্যাপী সমাদৃত।
প্রফেসর শুনসুকি মানাগী, জাপানের কিয়ুশু বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিস্টিংগুইস্ট প্রফেসর ও আরবান ইনস্টিটিউট এর পরিচালক। ইনক্লুসিভ ওয়েলথ রিপোর্টের পরিচালক। জাপান সোসাইটি ফর প্রমোশন অফ সায়েন্স পুরস্কারপ্রাপ্ত এবং জাপান সায়েন্স কাউন্সিল এর সদস্য।

২ দিনব্যাপী সম্মেলনের সময়সূচীঃ
৭ অক্টোবরে সূচনা বক্তব্য রাখবেন অনারারী সহযোগী প্রফেসর মো: আলাউদ্দিন, প্রফেসর শামস্ রহমান এবং প্রফেসর তপন সাহা। একইদিনে বঙ্গবন্ধু ও বাঙ্গালী জাতিসত্বা: নেতৃত্ব ও কৌশল বিষয়ে বক্তব্য রাখবেন প্রফেসর রেহমান সোবহান। বাংলাদেশ-এর কৃষি স্বনির্ভরতা থেকে রপ্তানীমূখীতা বিষয়ে বক্তব্য রাখবেন ডঃ শামসুল আলম। বাংলাদেশ-এর শিক্ষা: ২০৪১ রূপকল্পের প্রেক্ষিত, মানব সম্পদ বিনির্মাণ বিষয়ে কথা বলবেন প্রফেসর মুহাম্মদ জাফর ইকবাল। বাংলাদেশ-এর স্বাস্থ্য সেবা: আত্মনির্ভরতা থেকে স্বাস্থ্য পর্যটন বিষয়টির ওপর বক্তব্য রাখবেন প্রফেসর মোহাম্মদ শহীদউল্লাহ। বাংলাদেশের জ্বালানী উৎপাদন: উন্নয়ন ও পরিবেশ বিষয়ে বক্তব্য রাখবেন ডঃ তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী।
৭ অক্টোবরে বিশেষ একটি পর্বে বক্তব্য রাখবেন যুক্তরাজ্যের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বনামধন্য অর্থনীতিবিদ প্রফেসর স্যার পার্থ দাশগুপ্তের নেতৃত্বে “বিশ্ব মানচিত্রে বাংলাদেশের যথাস্থাপন” থিমের উপর গোলটেবিল আলোচনা। এই প্যানেলে আরও থাকছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অর্থনীতিবিদ ও পরিবেশ বিজ্ঞানী প্রফেসর এডওয়ার্ড বারবিয়ার (কোলারাডো স্টেট ইউনিভার্সিটি, যুক্তরাষ্ট্র), প্রফেসর কার্ল ফোক (বেইয়ার ইনস্টিটিউট, সুইডেন) এবং প্রফেসর শুনসুকি মানাগী (কিয়ুশু ইউনিভার্সিটি জাপান)।

অনুষ্ঠানে দ্বিতীয় এবং শেষ দিন ৮ অক্টোবরে বিশ্বমানচিত্রে বাংলাদেশের যথাস্থাপন: অর্জন, সুযোগ ও সম্ভাবনা বিষয়ে বক্তব্য রাখবেন প্রফেসর মোহাম্মদ ফরাশউদ্দিন। বাংলাদেশের পোষাক শিল্প: কোভিড পরবর্তী প্রতিযোগীতা সক্ষমতা বিষয়ে বক্তব্য রাখবেন বিজিএমইএ’র সভাপতি জনাব ফারুক হাসান। দক্ষিণ এশিয়ায় অন্তর্ভূক্তিমূলক সম্পদ: বাংলাদেশ প্রেক্ষিত বিষয়ে বক্তব্য রাখবেন প্রফেসর শুনসুকী মানাগী।
আগ্রহী দর্শকরা বিস্তারিত তথ্য ও নিবন্ধের জন্য এই প্রতিবেদনে দেয়া মিডিয়া রিলিজে যোগাযোগের ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য পেতে পারেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments