তারেকের শুরু করা ‘কাগজের ফুল’ আমরা শেষ করবো: ক্যাথরিন মাসুদ

  •  
  •  
  •  
  •  
তারেক মাসুদ এবং ক্যাথরিন।

প্রশান্তিকা ডেস্ক: প্রয়াত নন্দিত চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদ দূর্ঘটনায় নিহত হওয়ার আগে ‘কাগজের ফুল’ নামে একটি সিনেমা নির্মাণে হাত দিয়েছিলেন। সিনেমাটির জন্য লোকেশন দেখা শেষে ঢাকায় ফেরার পথে ৯ বছর আগে আজকের দিনে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন তারেক মাসুদ এবং তাঁর সহকর্মী মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মিশুক মনির। সেদিনের দূর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে প্রাণে বেঁচে যান তারেকের স্ত্রী চলচ্চিত্রকার ক্যাথরিন মাসুদ। নয় বছর পরে ক্যাথরিন মাসুদ আশা প্রকাশ করে বলেছেন, তাঁর স্বামীর অসমাপ্ত কাজ শেষ করবেন।

ফিল্মমেকার এবং জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. ফাহমিদা আখতার সঞ্চালিত লাইভ শো ‘ফিল্ম টক উইথ ফাহমিদা’-এ সম্প্রতি অতিথি হয়ে এসেছিলেন ক্যাথরিন মাসুদ। সেই অনুষ্ঠানে ক্যাথরিন বলেন, “তারেকের হাতে নেয়া ছবি ‘কাগজের ফুল’ আমরা নির্মাণ শেষ করব।” এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এই বিষয়টা আমার জন্য খুবই স্পর্শকাতর এবং আবেগের। আমি সবসময় ছবিটি নির্মাণ করতে চেয়েছি এবং এখনও চাই। অনেকটা কাজ এগিয়েছেও। আমরা ২০১১ সালের পরে ছবিটির কাজ ধরেছি। কিন্তু বাস্তবতা কঠিন ছিলো। তারেকের মৃত্যুর পরে আমাকে অনেক কিছু সামলাতে হয়েছে। আমাদের ছেলেটাও খুব ছোট ছিলো। আর সেসময়ে তারেকের শেষ করা ছবিও মুক্তি দিতে হয়েছে।” ক্যাথরিন মাসুদ ছেলে সহ যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোতে বাস করছেন এখন। তাঁর বাবা বেঁচে নেই, মা অসুস্থ। সেই কারণে তিনি এখন শিকাগোতে রয়েছেন বলে জানান।

ড. ফাহমিদা আখতার সঞ্চালিত লাইভ শোতে কথা বলছেন ক্যাথরিন মাসুদ।

তবে আশার কথা হলো তিনি এরপরে বাংলাদেশে ফিরে এসে ‘কাগজের ফুল’ নির্মাণে হাত দিতে চান এবং এ ব্যাপারে অন্যান্য কলাকুশলীদের সঙ্গে তাঁর নিয়মিত যোগাযোগ হচ্ছে বলে জানান। তিনি দৃঢ়কন্ঠে বলেন, ‘আমি এখনও আশাবাদী এই কাজ শেষ করতে পারব।’ এই ছবিটিও মাটির ময়না বা তারেক মাসুদের অন্যান্য ছবির মতো ইতিহাস নির্ভর সিনেমা। এর গল্প শুরু হয়েছে দেশভাগের ওপর নির্ভর করে।

তারেক ও ক্যাথরিনের একমাত্র শিশু সন্তান বয়স এখন ১০ বছর। সে এখন শিকাগোতে একটি স্কুলে গ্রেড ফাইভে পড়াশুনা করছে। তারেকের কোন স্মৃতি ছেলের না থাকলেও বিভিন্ন ভাবে সে তার বাবাকে আবিস্কার করছে। এ প্রসঙ্গে ক্যাথরিন বলেন, ছেলে তার স্কুলে বাবা তারেককে নিয়ে চমৎকার একটি প্রেজেন্টেশন করেছে। যা তাঁকে আলোড়িত করেছে। তিনি চান তাঁর ছেলে তারেকের মতো এতো বড় একজন মানুষকে পরিপূর্ণভাবে বুঝবে।

৯ বছর আগে আজকের দিনে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় প্রাণ হারান চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদ ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মিশুক মনির।

ফিল্ম টকে ক্যাথরিন তাঁর নাগরিকত্ব, বাংলাদেশের আরও নন্দিত চলচ্চিত্রকার এবং বিভিন্ন সংস্কৃতিজন এবং সমসাময়িক চলচ্চিত্র নিয়ে কথা বলেন। ফাহমিদা আখতার এই লাইভ শো’তে চলচ্চিত্রের অন্য পুরোধা ব্যক্তিদের নিয়েও আলোচনা করেছেন। এটি প্রতি রবিবার অনুষ্ঠিত হয়। আগ্রহী দর্শকেরা ‘Dr Fahmida Akhter’ পেজে এটি দেখতে পারেন।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments