নুসরাত হত্যা মামলার রায়: ১৬ জনের ফাঁসি

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশান্তিকা ডেস্ক: ফেনীর চাঞ্চল্যকর নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার রায় হয়েছে। ফেনি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সিরাজ দৌলা সহ ১৬ আসামীর ফাঁসির রায় দেয়া হয়েছে। এছাড়া ১৬ আসামীর প্রত্যেককে এক লক্ষ টাকা করে জরিমানা দেয়া হয়েছে। রায় শুনে আসামীরা আদালতেই কেঁদে ফেলেন। নুসরাতের বাবা, মা সহ পরিবারের সকলে স্বস্তি প্রকাশ করেন। তারা মামলার রায় দ্রুত কার্যকরের আহবান জানান। অন্যদিকে আসামীদের আইনজীবি উচ্চ আদালতে এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে বলে জানান।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে এ রায় ঘোষণা করেন। গত ৩০ সেপ্টেম্বর মামলার দুই পক্ষের যুক্তিতর্কের শুনানি শেষে বিচারক এই দিন ধার্য করেন। মাত্র ৩৩ কর্মদিবসে দ্রুত বিচার আদালতে সম্পন্ন হলো নুসরাত হত্যা মামলার বিচার প্রক্রিয়া।

এ মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত ১৬ আসামি ও মৃত্যুদন্ড প্রাপ্তরা হলেন—সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসার বরখাস্ত হওয়া অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলা, সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সভাপতি রুহুল আমিন, সোনাগাজী পৌরসভার কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম, মাদ্রাসার শিক্ষক আবদুল কাদের, প্রভাষক আফসার উদ্দিন, মাদ্রাসার ছাত্র নূর উদ্দিন, শাহাদাত হোসেন শামীম, সাইফুর রহমান মোহাম্মদ যোবায়ের, জাবেদ হোসেন ওরফে সাখাওয়াত হোসেন জাবেদ, কামরুন নাহার মনি, উম্মে সুলতানা পপি ওরফে তুহিন, আবদুর রহিম শরিফ, ইফতেখার উদ্দিন রানা, ইমরান হোসেন মামুন, মোহাম্মদ শামীম ও মহি উদ্দিন শাকিল।

মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত ১৬ আসামী

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। ফেনীর জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মামুনুর রশিদের আদালতে এ রায় ঘোষণা করা হয়েছে।রায়কে ঘিরে গতকাল বুধবার রাত থেকে নুসরাতদের বাড়িতে পাহারা জোরদার করা হয়েছে। বাংলাট্রিবিউন জানায়, আত্মীয়-স্বজন ও পরিচিত লোকজনও রেজিস্ট্রার খাতায় সই না করে ওই বাড়িতে ঢোকার অনুমতি পাচ্ছেন না। গত ৭ এপ্রিল থেকে বাড়িটিতে পুলিশ পাহারা বসানো হয়।
এদিকে, বৃহস্পতিবার ভোর থেকে জেলা সদর ও সোনাগাজীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে পুলিশের নিরাপত্তাচৌকি বসানো হয়েছে।

নুসরাত হত্যা মামলাটি দায়ের করা হয় গত ৮ এপ্রিল। নুসরাতের ভাই নোমান এই মামলার বাদী। ১০ এপ্রিল থানা থেকে মামলাটি পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মোট ৩৩ কার্যদিবসে ১৬ জন আসামিকে অভিযুক্ত করে মামলার চার্জশিট দেয় পিবিআই। পরে ২০ জুন চার্জগঠন এবং ২৭ জুন সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। চার্জশিটে মোট ৯১ জনকে সাক্ষী করা হয়। এর মধ্যে ৮৭ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments