পার্থ বিমানবন্দর থেকে ফেরত পাঠানো হলো দুই বাংলাদেশীকে

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশান্তিকা রিপোর্ট: ডিক্লেয়ার না করে লাইভ প্লান্ট বা গাছের চাড়া আনার অপরাধে দুই বাংলাদেশী নাগরিককে ফেরত পাঠানো হলো অস্ট্রেলিয়ার পার্থ বিমানবন্দর থেকে। পার্থে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, গত ৩ নভেম্বর রোববার তাদের অস্ট্রেলিয়া ভ্রমণের ভিসা ক্যান্সেল করে ৮৪০ ডলার জরিমানা করা হয় ।অত:পর তাদের ফেরত পাঠানো হয়েছে এবং আগামী তিন বছরের মধ্যে তারা অস্ট্রেলিয়ায় আসতে পারবেন না।

পার্থ বিমানবন্দরের বায়োসিকিউরিটি বিভাগ জানায়, প্যাসেন্জার ডিক্লেয়ার ফর্মে ওই দুই যাত্রী চালের কথা উল্লেখ করেছে। কিন্তু তারা প্রায় ২১ ধরনের লাইভ প্লান্ট নিয়ে আসছিলো। যাত্রীদের ঢুকতে দিলে তাদের থেকে ৪লক্ষ ২০ হাজার ডলার জরিমানা আদায় করা হতো। নতুন নিয়মে সাধারণত অস্ট্রেলীয় নাগরিকদের এই জরিমানা এবং ১০ বছর পর্যন্ত জেল দেয়ার বিধান রয়েছে।

ডিক্লেয়ার না করে যেসব প্লান্ট আনা হচ্ছিলো, ছবি: বায়োসিকিউরিটি বিভাগ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পার্থ বিমানবন্দরের প্যাসেঞ্জার সিকিউরিটি বিভাগে কর্মরত প্রশান্তিকার পাঠক জানান, পার্থ বিমানবন্দরে বায়ো সিকিউরিটি বিভাগ খুব কঠোর নিয়ম মেনে চলে। কোনভাবেই অবৈধ কিছু বা বৈধ কিছু ডিক্লেয়ার না করে আনার চেস্টা করা যাবেনা। নতুন নিয়মে ইতোমধ্যে চারজনের ভিসা ক্যান্সেল করে অস্ট্রেলিয়ায় ঢুকতে দেয়া হয়নি। ফেরত পাঠানো যাত্রীরা তিন বছরের মধ্য অস্ট্রেলিয়া আসতে পারবেন না। বিমানবন্দরের স্বয়ংক্রিয় মেশিন লাগেজ না খুলেই ধরে ফেলতে পারে ভেতরে কি আছে। এছাড়া সক্রিয় রয়েছে গন্ধশক্তি নির্ভর ট্রেনিং ডগ। উল্লেখ্য, ফেরত পাঠানো বাংলাদেশীদের পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।
শুধু পার্থ নয় অস্ট্রেলিয়ার সকল বিমানবন্দরেই বায়োসিকিউরিটি বিভাগের কঠোর আইন রয়েছে। এতে বলা হয়, দেশের বাইরে থেকে অপ্রচলিত প্লান্ট বা চাড়া এনে এদেশীয় গাছগাছড়ার প্রজাতির ক্ষতি হয়। তাতে অস্ট্রেলিয়ার প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হয়।

 

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments