পুনর্জন্ম -কাজী লাবণ্য

  •  
  •  
  •  
  •  
কাজী লাবণ্য

নজিরবিহীন দাবানলে কয়েকমাস ধরে ছারখার হয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়ার বিস্তীর্ণ অঞ্চল।
প্রায় সাড়ে ছয় মিলিয়ন হেক্টর ভূমি পুড়েছে। তবে আনন্দের কথা যে এরই মধ্যে কিছু এলাকায় ছাই ভেদ করে প্রাণের চিহ্ন দেখা যাচ্ছে। অল্প অল্প করে গজিয়ে উঠতে শুরু করেছে সতেজ ঘাস ও গাছের চারা।
৭১ বছর বয়সী আলোকচিত্রশিল্পী মারি লোয়েস অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস অঞ্চলের কাছে সমুদ্র তীরবর্তী কুলনারা এলাকায় গিয়ে তুলে এনেছেন নতুন প্রাণের ছবি।
শখের বসে ছবি তোলেন অবসরে যাওয়া মারি লোয়েস। তিনি মূলত গিয়েছিলেন আগুনে ছারখার হয়ে যাওয়া প্রকৃতির ছবি তুলতে। কুলনারার সড়ক ধরে গাড়ি চালিয়ে যাওয়ার সময় তিনি জাতীয় উদ্যানে থেমেছিলেন।

ছাই ভস্মের মধ্যে গজিয়ে উঠছে সবুজ ঘাস

তিনি বলেন, “এক ধরনের অতিপ্রাকৃত নীরবতার মধ্যে দিয়ে পুড়ে যাওয়া গাছের গুঁড়িগুলোর পাশ দিয়ে যখন হেঁটে যাচ্ছিলাম, তখন আমার পায়ের প্রতিটি ধাপের সাথে সাথে মাটি থেকে বাতাসে ছাই উড়ে যাচ্ছিল। ভয়াবহ আগুনই পারে এমন বিধ্বংসী ছাপ রেখে যেতে।”

পুড়ে যাওয়া গাছে গজাচ্ছে নতুন প্রাণ

এসব এলাকায় মাটির উপর জমে থাকা ছাইয়ের মাঝে সবুজ ঘাস এবং পুড়ে যাওয়া গাছের গুঁড়িতে গজিয়ে ওঠা গোলাপি রঙয়ের কুশি দেখতে পান তিনি। আহা, এর চেয়ে আনন্দের আর কি হতে পারে! বাঁচুক সবুজ, বেঁচে উঠুক বনভূমি ।

পোড়া বনে এই যে প্রাণের উঁকি, এটাই প্রমাণ করে জগতে সবাই টিকে থাকতে চায়।

“গলিত স্থবির ব্যাঙ আরো দুই মুহূর্তের ভিক্ষা মাগে আরেকটি প্রভাতের ইশারায়–অনুমেয় উষ্ণ অনুরাগে”।

কাজী লাবণ্য: কথাসাহিত্যিক ও কবি, বাংলাদেশ ।

 

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments