মাইলস্ ও অর্ণব: গ্রীনফিল্ড এন্টারটেইনমেন্টের এবছরের উপহার

  •  
  •  
  •  
  •  

আরিফুর রহমান: সিডনিতে এবছরের শেষ আকর্ষণ মাইলস্ ও অর্ণবের সুর মূর্ছনার মধ্য দিয়ে গ্রীনফিল্ড এন্টারটেইনমেন্ট আবারও একটি জমকালো ‘মিউজিক ফেস্ট ২০১৯’ আয়োজন করতে যাচ্ছে। শিল্পী বা ব্যান্ড বাছাই থেকে শুরু করে সাউন্ড, স্টেজ, লাইটিং সবকিছু মিলেই একটি বড় মাপের অনুষ্ঠান হবে এটি । আসছে ১৯ অক্টোবর শনিবার সন্ধ্যায় সিডনিতে আসছেন উপমহাদেশের নামকরা এবং বাংলাদেশের জনপ্রিয় ব্যান্ড মাইলস্ এবং এসময়ের শিল্পী অর্ণব। কনসার্টটি অনুষ্ঠিত হবে নিউ সাউথ ওয়েলস ইউনিভার্সিটির সায়েন্স থিয়েটার হলে।

এই মিউজিক ফেস্টকে সামনে রেখে গ্রীনফিল্ড এন্টারটেইনমেন্ট গতকাল সন্ধ্যায় সিডনির গ্রামীণ চটপটি রেস্টুরেন্টে এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে। গ্রীনফিল্ড কর্তৃপক্ষ সাংবাদিক ও সংবাদ মাধ্যমের কাছে তাদের আয়োজনের সকল তথ্য তুলে ধরে এবং সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেয়।
গ্রীনফিল্ড গত বছর স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ থেকে দুটি বড় ব্যান্ড এবং অসংখ্য তারকার সংমিশ্রনে ওপেন এয়ার অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলো। কিন্তু এবার তারা এই মিউজিক ফেস্ট করছেন ইন্ডোর থিয়েটার হলে।

এক সাংবাদিকের প্রশ্নের উত্তরে আয়োজকদের একজন এনাম আহমেদ বলেন, আবহাওয়ার চিন্তাটা মাথায় রেখে তারা ইন্ডোরে আয়োজন করছেন। কেননা আগে থেকেই ওই দিনের আবহাওয়ার সঠিক ধারনা করা মুশকিল। গ্রীনফিল্ডের গত বছরের কনসার্টটি বৈরি আবহাওয়ার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলো। আর সেই তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকেই এমন সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছ । তাছাড়া সাউন্ড, লাইটিং সবকিছু ইন্ডোরে বেশি কাজ করে বলে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সাউন্ড ও লাইটিং এর প্রসঙ্গে অন্য এক প্রশ্নের জবাবে গ্রীনফিল্ডের কর্ণধার ফয়সাল আজাদ বলেন, “হ্যা আমাদের গত বছরের সাউন্ড ও লাইট ছিলো অনেক উন্নত মানের।সেটা আপনারা সবাই জানেন। আমরা বলতে পারি এমন সাউন্ড সিস্টেম সিডনিতে কেউ দিতে পারেনি। আপনারা জেনে খুশি হবেন যে, গত বছরের মতো এবারও সেই একই রকম সাউন্ড সিস্টেম এবং লাইটিং থাকছে।”

মাইলস:
আমরা মাইলস্ সম্পর্কে সবাই জানি। প্রখ্যাত সঙ্গীত পরিবারে জন্ম নেয়া সাফিন আহমেদ ও হামিদ আহমেদ দুই সহোদরের বিখ্যাত এবং জনপ্রিয় ব্যান্ডদল মাইলস’র জন্ম ১৯৮১ সালে। পিংক ফ্লয়েড এবং বিটলস’র দ্বারা প্রভাবিত ব্যান্ডটি একসময় ইংরেজি গান ছাড়া গাইতোনা। সকলের ধারণা ছিলো তারা বাংলা গান করতে পারবেনা। কিন্তু মাইলস যখন ‘প্রতিশ্রুতি’ নাম দিয়ে বাংলা অ্যালবাম বের করেন এবং সেই অ্যালবাম সকল রেকর্ড ভেঙ্গে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। বিশেষ করে ‘ চাঁদ তারা’ গানটি সবার হৃদয়ে গেঁথে যায়। দ্বিতীয় অ্যালবাম ‘প্রত্যাশা’ বের হওয়ার পর মাইলসকে আর পেঁছনে তাকাতে হয়নি। এবছর মাইলস্ ৪০ বছরে স্পর্শ করেছে। সুতরাং সিডনির শোটি আসলেই বিশেষ একটি মাইলফলক হবে। মাইলস’র সেরা গানগুলো হলো: চাঁদ তারা, ফিরিয়ে দাও, ধিকিধিকি, হৃদয়হীনা, নীলা, প্রথম প্রেমের মতো ইত্যাদি।

অর্ণব:
শায়ান চৌধুরী অর্ণব। শুধুমাত্র আধুনিক বা ব্যান্ডের গানই নয় অসাধারণ রবীন্দ্রসংগীত গেয়ে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়েছেন। তাঁর ‘সে যে বসে আছে’ গানটি শুনলে এখনও ভক্তরা বিমুগ্ধ হয়ে যায়। রবীন্দ্রসঙ্গীত ছাড়াও অর্ণবের সেরা গানগুলো হলো: সে যে বসে আছে একা একা,
হোক কলরব, তোমার জন্য মিলছে তারা, বোকা চাঁদ ইত্যাদি।

অনুষ্ঠানে মাইলস ও অর্ণব ছাড়াও গতবছর পারফর্ম করা জনপ্রিয় রাফসানও থাকবে এবছর।
সংবাদ সম্মেলনে আয়োজকেরা নানাবিধ বিষয় এবং টিকেটের মূল্য তুলে ধরেন।
সিলভার: ৪০ ডলার
গোল্ড: ৫০ ডলার
প্লাটিনাম: ৬০ ডলার
ডায়মন্ড : ৮০ ডলার
ভি আই পি: ১০০ ডলার
এবং ভি ভি আই পি ডিনার সহ টিকেটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫০ ডলার।
সকল টিকেট ‘ইভেন্টস এন টিকেট’ অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে বলে আয়োজকরা জানান।

প্রেস কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন গ্রীনফিল্ডের এনামুল হক, ফয়সাল আজাদ, মিরাজ হোসেন এবং টাইটেল স্পনসর এএনজেড মোবাইল লেন্ডার রাহাত ফেরদৌস, বাংলাদেশ নাইটস্ আয়োজক ইমন।
উপস্থিত সাংবাদিকদের মধ্যে ছিলেন আউয়াল খান (প্রভাত ফেরী), বেলাল হোসেন (জয়যাত্রা টেলিভিশন), খোকন আজাদ (নবধারা), আরিফুর রহমান ও ফাহাদ আসমার (প্রশান্তিকা), নার্গিস বানু ( ভয়েস অব বাংলাদেশ) জন্মভূমি টেলিভিশনের সাংবাদিক ছাড়াও আরও অনেকে।

অনুষ্ঠানটির মিডিয়া পার্টনার হিসেবে থাকছে
স্বদেশ বার্তা, লিসেনফর, সিডনি প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল, নিউজ২৪, প্রশান্তিকা, বাংলা কথা, বিদেশ বাংলা, সিডনি প্রতিদিন, প্রভাত ফেরী, আড়ঙ্গ, জয়যাত্রা, গান বাক্স, বাংলা বার্তা সহ বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল ও টেলিভিশন চ্যানেল।