মিথিলা বিয়ে করলেন সৃজিতকে

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশান্তিকা ডেস্ক: সকল জল্পনা,কল্পনা শেষে কলকাতার জনপ্রিয় নির্মাতা সৃজিত মুখার্জিকে বিয়ে করলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় তারকা মিথিলা। জনপ্রিয় গায়ক ও নায়ক তাহসান খানের সাথে বিয়ে বিচ্ছেদ, নাটক নির্মাতা ফাহমি’র সাথে ডেটিং ও ছবি ভাইরাল শেষে মিথিলার এই বিয়ে দুই বাংলায় দর্শকদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন মিথিলা। গত ৬ ডিসেম্বর কলকাতায় বিয়ে শেষে নব দম্পতি হানিমুনের জন্য সুইজারল্যান্ডের পথে রয়েছেন।

মিথিলাকে বিয়ের আংটি পরিয়ে দিচ্ছেন সৃজিত

কলকাতায় সৃজিতের বাড়িতে মিথিলার বাবা মা, মেয়ে আইরা সহ দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠ জনদের উপস্হিতিতে এই বিয়ে সম্পন্ন হয়। সন্ধে সাতটায় রেজিস্ট্রি করে বিয়ে করেন সৃজিত এবং মিথিলা। লেক গার্ডেনসে সৃজিতের বাড়িতেই রেজিস্ট্রি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয় নবদম্পতির। খুব কাছের কিছু বন্ধুবান্ধব এবং পরিবারের মানুষজন উপস্থিত ছিলেন। সৃজিতের সাথে তাঁর এক বছর হলো প্রেম চলছিলো। বিয়ে উপলক্ষে বাবা জামাই সৃজিতকে কি উপহার দিলেন? গনমাধ্যমের এই প্রশ্নের জবাবে মিথিলা বলেন, “উপহার দেওয়া-নেওয়া তো অনেক দিন আগে থেকেই হচ্ছে। কিছুদিন আগে সৃজিত ঢাকা গিয়েছিল। তখনো ওর জন্য অনেক কেনাকাটা হয়েছে। এবার আসার সময় আব্বু চারটি ইলিশ মাছ এনেছেন। প্রতিটির ওজন ২ কেজি। এখানে সবাই পদ্মার ইলিশের দারুণ ভক্ত।”

বিয়ের পর প্রথম সেলফি

হানিমুন উপলক্ষে নব দম্পতি সুইজারল্যান্ডে এক সপ্তাহ থাকবেন বলে জানা গেছে। পাশাপাশি সেখানকার একটি ইউনিভার্সিটিতে পিএইচডি করার জন্যও মিথিলা আবেদন করতে পারেন। এর আগে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চতর শিক্ষা নিয়েছেন। তিনি ব্রাকের আর্লি চাইল্ডহুড বিভাগের প্রধান হিসেবে কর্মরত আছেন।

অনেকেই এই বিয়েকে দুই বাংলার মিলন উৎসব বলে অভিহিত করেছেন। ভারতে নির্বাসিত বাংলাদেশের লেখিকা তসলিমা নাসরিন এই বিয়েকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন। নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে তিনি বলেছেন, “সৃজিতকে জানি তাঁর ছবি দেখে। মিথিলা সম্পর্কে কিছুই জানতাম না। কাল ফেসবুকে দুজনের বিয়ের খবর পড়ার পর মিথিলাকে সে তথ্য গুগল করে পেয়েছি। ব্যাপারটা চমৎকার। এই প্রেমটা। সৃজিত মিথিলার প্রেম। হিন্দু মুসলমানের প্রেম। শুধু প্রেমই নয়, বিয়েও। পুব আর পশ্চিমের মিলন। এসব যত বেশি ঘটবে, তত উড়বে ধর্ম, ঘুচবে সংস্কার, ছিঁড়বে কাঁটাতার, মরবে বিদ্বেষ।”

মেয়ে আইরার সঙ্গে নবদম্পতি সৃজিত ও মিথিলা

উল্লেখ্য, সৃজিত মুখার্জি বাংলার নিউ ওয়েভ ফিল্ম মেকারদের অগ্রগণ্য এক নির্মাতা। ২০১০ সালে তাঁর প্রথম ছবি ‘অটোগ্রাফ’ খুব জনপ্রিয় ও ব্যবসাসফল হয়। এরপর একে একে নির্মান করেন বাইশে শ্রাবণ, জাতিস্মর, চতুস্কান, নির্বাক, রাজকাহিনী, ভিঞ্চি দা, সাজাহান রিজেন্সি, গুমনামী সহ বেশ ক’টি সিনেমা। নির্মানাধীন রয়েছে কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন ও দ্বিতীয় পুরুষ।