মিন্টোতে সাংবাদিকদের সাথে কমিউনিটি ভয়েসের মত বিনিময়

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশান্তিকা ডেস্ক : গত ২৯ শে নভেম্বর সোমবার সন্ধ্যায় কমিউনিটি ভয়েস মিন্টোতে তাদের প্রচার অফিসে বিভিন্ন কমিউনিটি মিডিয়ার কাছে তাদের মতামত ব্যক্ত করার জন্য একটি মিট দি প্রেস অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। কমিউনিটি ভয়েস ক্যাম্পবেলটাউন আসন্ন স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। কাউন্সিলের কাছে সম্প্রদায়ের কণ্ঠস্বর বহন করতে এবং কোনও রাজনৈতিক দলের এজেন্ডা বাস্তবায়নের পরিবর্তে কাউন্সিলকে তার সমস্ত বাসিন্দাদের সুবিধার জন্য কাজ করতে এবং আরও কার্যকর হতে সাহায্য করার অভিপ্রায় নিয়ে তারা এই নির্বাচনে দাঁড়িয়েছে।

মিট দ্য প্রেসে বক্তব্য রাখছেন কমিউনিটি ভয়েসের নেতা মোহাম্মদ খলিল মাসুদ।

ক্যাম্পবেলটাউন আসন্ন স্থানীয় সরকার নির্বাচনের জন্য কমিউনিটি ভয়েস দশ সদস্যের একটি অরাজনৈতিক স্বতন্ত্র প্যানেল গঠন করেছেন। এই প্যানেলে বিভিন্ন কম্যুনিটির প্রতিনিধি ছাড়াও চারজন মহিলা প্রার্থী রয়েছেন। তাঁর প্যানেলের নাম কম্যুনিটি ভয়েস বা কম্যুনিটির কণ্ঠস্বর। ব্যালট পেপারে উপরের লাইনে এই প্যানেলটি গ্রুপ-ডি হিসেবে উল্লেখ করা থাকবে। প্রার্থীরা হচ্ছেন, হালাবি খালেদ, কারকি সজন, জাবের বেলাল, খান মোরশেদা, সফিউজ্জামান এমডি, হোসাইন খুরশিদা, নাসরিন সুলতানা, সুলতানা শারমিন ও চৌধুরী আফজাল।
অনুষ্ঠানে কমিউনিটি ভয়েসের প্রধান প্রার্থী জনাব খলিল মুহাম্মদ মাসুদ প্রথমেই অস্ট্রেলিয়া তথা ক্যাম্পবেলটাউনের আদবাসিদের প্রতি সম্মান জানিয়ে বলেন, আমরা আজ আপনাদেরকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি কারণ আমরা বিশ্বাস করি মিডিয়া হচ্ছে একটি কমিউনিটির অবিচ্ছেদ্য অংশ। সামাজিক সমস্যা, জনগণের চাহিদা এবং একটি কমিউনিটির কথাগুলো প্রধানত মিডিয়া কভারেজের মাধ্যমে প্রতিফলিত হয়। আমাদের কমিউনিটির সমস্যাগুলো সনাক্ত করতে এবং তাদের কথাগুলো যেন যথাযথভাবে তুলে ধরা যায় তা নিশ্চিত করার জন্য আমাদের আপনার সহায়তা প্রয়োজন ।

অনুষ্ঠানে একটি সংক্ষিপ্ত ভিডিও ডকুমেন্টারির মাধ্যমে কমিউনিটি ভয়েস তাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য সবার সামনে তুলে ধরে । ভিডিওটি পাশাপাশি জনাব খলিল তাঁর বক্তব্যে বলেন, আমাদের লক্ষ্য হল একটি সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য কাউন্সিল এবং কম্যুনিটির মধ্যে আরও ভাল সহযোগিতা নিশ্চিত করা। একটি ভবিষ্যৎ- যে ভবিষ্যৎ মানুষের প্রয়োজনকে স্বীকৃতি দেয়, আদিবাসী ইতিহাস ও ঐতিহ্য সহ আমাদের স্থানীয় এলাকার প্রাকৃতিক ও সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ বজায় রাখে, বাংলাদেশি ও মুসলিম কম্যুনিটিকে আরও শক্তিশালী করে তোলে এবং আমাদের পরিবেশ ও টেকসই ভবিষ্যতের পরিকল্পনার উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে। তিনি উল্লেখ করেন, আমাদের প্রত্যয় ক্যাম্বেল্টাউনের বাসিন্দাদের উদ্বেগ এবং আকাঙ্ক্ষার প্রতি কাউন্সিলকে দায়বদ্ধ রাখা। আমরা চাই একটি অংশগ্রহণমূলক গণতন্ত্র, আমাদের যুবকদের জন্য সুন্দর পরিবেশ, সুখী পরিবার, সাশ্রয়ী মূল্যের আবাসন এবং নবায়নযোগ্য সাশ্রয়ী বিদ্যুৎ উৎপাদন। আমরা চাই এই কাউন্সিল আগামী প্রজন্মের কাছে বসবাস এবং কাজের জন্য চমৎকার জায়গা হিসেবে সমস্ত অস্ট্রেলিয়ার কাছে একটি উদাহরণ হয়ে উঠুক।
সবশেষে, জনাব খলিল সকল মিডিয়ার উপস্থিতির প্রশংসা করেন এবং ধন্যবাদ জানান। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাদে ওয়াতান থেকে জনাব সাইদ জাফর, গুড মর্নিং ম্যাকআর্থার থেকে ব্রায়ান লল, সুপ্রভাত সিডনি থেকে আবদুল্লাহ ইউসুফ, লেখক ও গবেষক শিবলি আবদুল্লাহ, চ্যানেল ফাইভ নিউজ অস্ট্রেলিয়ার হানিফ বিসমি, ভয়েস অফ আমেরিকা থেকে ড. শফিকুর রহমান, বাংলা কথা থেকে আউয়াল খান, সিডনি বাংলা নিউজ থেকে মিজানুর রহমান সুমন, অস-বুলেটিন থেকে ড. ফজলে রাব্বি, ইসলামী বেতার থেকে আলতাফ হোসেন, বাংলাদেশ টেলিভিশনের উপস্থাপক আসিফ ইকবাল, স্বাধীন কণ্ঠ থেকে ভাইটাল আহমেদ, ইসলামী বার্তা থেকে মোহাম্মদ আবু ইউসুফ, হক কথা থেকে হাবিবুর রহমান, প্রশান্তিকা থেকে নামিদ ফারহান, গাঙচিল থেকে টাবু সঞ্জয়, সাংবাদিক জুমান হোসেন এবং অস-বাংলার শাহানা পারবীন। অনুষ্ঠানে সম্মানিত ব্যক্তিবর্গের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন, মাল্টিকালচারাল সোসাইটি অব ক্যম্বেল্টাইউনের সভাপতি জনাব এনাম হক এবং বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউ সাইউথ ওয়েলসের সভাপতি জনাব মাহবুব চৌধুরী।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments