মেলবোর্নে নববর্ষ উদযাপন: ভিক্টোরিয়ান বাংলাদেশী কমিউনিটি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে

  •  
  •  
  •  
  •  

মিতা চৌধুরী, মেলবোর্ন থেকে: ভিক্টোরিয়ান বাংলাদেশী কমিউনিটি ফাউন্ডেশন মেলবোর্নের বাংলাদেশীদের অন্যতম বৃহৎ সংগঠন। গত ১০এপ্রিল পশ্চিম মেলবোর্নের অঙ্কর ইভেন্ট সেন্টারে ভিক্টোরিয়ান বাংলাদেশী কমিউনিটি ফাউন্ডেশন (ভিবিসিএফ) এর উদ্যোগে আয়োজিত হয় দিন ব্যাপী বৈশাখী মেলা ও উৎসব। দীর্ঘ লকডাউনের পর বাঙালি কমিউনিটি যেনো এই আয়োজনের মাঝে প্রাণ খুঁজে পেয়েছিলো। সকলের মাঝেই দেখা যায় উৎসবের আমেজ।

কোভিড- ১৯ এর বিধিনিষেধ মেনে এই আয়োজনে ছিলো দিন ব্যাপী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বিভিন্ন পোষাক ও জুয়েলারীর স্টল, খাবারের স্টল ও বাচ্চাদের জন্য বিভিন্ন রাইড । পাঁচ হাজারেরও অধিক জনসমাগম হয় এই দিন ব্যাপী আয়োজনে। স্টলগুলোতে কথা বলে জানা যায় প্রত্যেকেই আশাতীত ব্যবসা করেছেন তাই সকলেই অত্যন্ত সন্তুষ্ট এই আয়োজকদের নিয়ে।

সকাল ১১টার আগে থেকেই বাংলাদেশী কমিউনির লোকজন লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে প্রবেশ করতে থাকে অনুষ্ঠানস্থলে। যদিও কোভিডের কারণেই এই লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে প্রতীক্ষা তবুও লোকজন বেশ উৎসাহ ও খোশমেজাজেই অপেক্ষা করতে থাকে, কারো মাঝেই কোনো বিরক্তি বা ক্লান্তি লক্ষ্য করা যায়নি। দীর্ঘ লকডাউনের পর অঙ্কর ইভেন্ট সেন্টারটি যেনো হয়ে উঠেছিল এক টুকরো মুখোরিত বাংলাদেশ।

দিন ব্যাপী এই আয়োজনের সাংস্কৃতিক অংশকে মূল তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়েছিল বলে জানান সংগঠনের ভাইস প্রেসিডেন্ট (১) মোশাররাফ হোসেন রেহান। তিনি বলেন, যেহেতু বৈশাখ দক্ষিণ এশিয়ার বেশকিছু দেশেই উদযাপন করা হয় এবং বর্তমানে আমরা একটি মাল্টিকালচারাল দেশে বসবাস করছি তাই আমরা চেষ্টা করেছি সবাইকে এক মঞ্চে আনতে। মোশাররাফ হোসেন রেহান বলেন, তাই আমরা আমাদের সাংস্কৃতিক অংশকে আমাদের সংগঠনের জন্য একটি পর্ব, দক্ষিণ এশিয়ার জন্য একটি পর্ব ও অন্যান্য দেশের জন্য একটি পর্ব- এভাবে ভাগ করেছিলাম। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মেলবোর্নের বাংলাদেশী সাংষ্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব ও দল ছাড়াও ভারতের কলকাতার, তেলেঙ্গানার, চাইনিজ ও অন্যান্য কমুনিটির  সাংষ্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব ও দল অংশগ্রহণ করেন।

বৈশাখের এই আয়োজনে আয়োজকরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাফল্য ও অবদানের জন্য ভিক্টোরিয়ার বাংলাদেশী কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যাক্তিদের সম্মাননা প্রদান করেন। ৫টি বিভাগে মোট ৬ জন কে দেয়া হয় এই সম্মাননা। যারা পেয়েছেন সম্মাননা তারা হলেন; জনাব কামরুল চৌধুরী সামাজিক অবদানের জন্য , সহযোগী অধ্যাপক জনাব আখতার হোসাইন  শিক্ষা ও গবেষণায় , ডঃ আহমেদ শরীফ শুভ ও ডঃ আজিজ রহমান চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য, শুভ্রা দাস (মরণোত্তর) সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব ও মাহাদী ইসলাম ক্রীড়া।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল এমপি জোয়ান রায়ান, ভিক্টোরিয়ার সিনেটর কুশেইলা ভ্যাগেলা এমপি, উইন্ডহ্যাম সিটির কাউন্সিলর হেথার মার্কাস, জেসমিন হিল ও সাহানা রামেশ। উইন্ডহ্যাম সিটির কাউন্সিলররা এই আয়োজনে অভিভূত ও মুগ্ধ হয়ে বলেন, ভবিষ্যতে উইন্ডহ্যাম সিটি এই আয়োজনের জন্য সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে ও আয়োজকদের পাশে থাকবে।

ভবিষ্যতে মেলবোর্নে সকলের অংশগ্রহনে বিশাল পরিসরে একটি সর্বান্তক বৈশাখী মেলা করতে চায় বলে জানান আয়োজকরা।
প্রশান্তিকা এই আয়োজনের মিডিয়া পার্টনার হিসেবে অংশগ্রহণ করে।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments