রিফাত হত্যা মামলায় স্ত্রী মিন্নি সহ ৬ জনের ফাঁসির রায়

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশান্তিকা ডেস্ক: বরগুনায় চাঞ্চল্যকর রিফাত হত্যা মামলার আজ রায় হয়েছে। রায়ে তাঁর স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে ফাঁসির রায় দেয়া হয়েছে। সর্বমোট ১০ জন আসামীর মধ্যে মিন্নিসহ ছয়জনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। বাকী ৪ জনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

রায় উপলক্ষে বাবার সাথে আদালতে আসেন মিন্নি।

আজ বুধবার বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আছাদুজ্জামান এ রায় ঘোষণা করেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত বাকি পাঁচ আসামি হলেন রাকিবুল হাসান রিফাত ফরাজি (২৩), আল কাইউম ওরফে রাব্বি আঁকন (২১), মোহাইমিনুল ইসলাম ওরফে সিফাত (১৯), রেজওয়ান আলী খান ওরফে টিকটক হৃদয় (২২) ও মো. হাসান (১৯)। খালাস পেয়েছেন রাফিউল ইসলাম, মো. সাগর, কামরুল ইসলাম সাইমুন ও মো. মুসা। মুসা পলাতক আছেন। জামিনে থাকা মিন্নি আজ সকালে বাবার সাথে আদালতে আসেন। রায় ঘোষণার পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এসময় আদালত চত্বরে অসংখ্য লোকসমাগমের সৃষ্টি হয়। রায় উপলক্ষে পুরো শহর ও আদালত এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।

মৃত্যুদন্ডের রায়ের পরে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে মিন্নিকে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ২৬ জুন বরগুনায় রিফাতকে হত্যা করার পরের দিন মামলা করা হয়। গত বছরের ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে রিফাত শরীফকে তাঁর স্ত্রী আয়শার সামনে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে সন্ত্রাসীরা। এরপর তাঁকে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর সেদিন বিকেলে তিনি মারা যান। পরের দিন ২৭ জুন রিফাতের বাবা আবদুল হালিম শরীফ বরগুনা থানায় ১২ জনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা করেন। এ মামলায় প্রধান সাক্ষী করা হয় আয়শাকে। পরে অভিযোগপত্রে ৭ নম্বর আসামি হিসেবে নাম আসে তাঁর। গত ১ জানুয়ারি রিফাত হত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালত। ৮ জানুয়ারি থেকে প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। রিফাত হত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে ৭৬ জন সাক্ষ্য দেন।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments