রিফাত হত্যা : সিসিটিভি ফুটেজ গায়েব

  •  
  •  
  •  
  •  

বরগুনায় রিফাত হত্যাকাণ্ড প্রকাশ্যে আসে ভাইরাল হওয়া ভিডিওর জন্য। কিন্তু সেটা ছিল ঘটনার শেষ দৃশ্য, ঘটনার শুরু হয় আরো আগে।

ঘটনার সময় কলেজের সামনের রাস্তায় দূর থেকে ধারণ করা ও ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি থেকে প্রকাশ্যে হামলাকারীদের ছবি পাওয়া যায়। কলেজের ভেতর থেকে রিফাত শরীফকে বের করে আনার সময় তা কলেজের সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পরার কথা। কিন্তু, হত্যাকাণ্ডের পর থেকেই কলেজের ভেতরে থাকা সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ পাওয়া যাচ্ছে না। কলেজের অধ্যক্ষের দাবি ঘটনার দুই দিন আগে বজ্রপাতে সিসি ক্যামেরাগুলো অকেজো হয়ে গেছে।

কলেজের শিক্ষার্থীরা বলেন, “গত এক মাসেও আমরা কোনও বজ্রপাতের আওয়াজ শুনিনি, কলেজে আরও আগেও যদি কোনো বজ্রপাত হতো, তাহলে তা আমরা শুনতে পেতাম। কিন্তু এখানে এধরণের কোন কিছু ঘটেনি।”

অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দিনের পর দিন কলেজ ক্যাম্পাসে ‘বন্ড ০০৭’ গ্রুপের অপরাধ আড়াল করে রাখার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে অধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ বলেন, “বরগুনা সরকারি কলেজ মাদক মুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত, বহিরাগত মুক্ত। কলেজের বাইরে কোথায় কি ঘটে এইটা তো আমাদের নিয়ন্ত্রণে না।”

অধ্যক্ষ কলেজের পরিবেশকে খুব ভালোভাবে উপস্থাপন করলেও শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের বক্তব্য কলেজের পরিবেশ ছিল রীতিমত ভীতিকর ও ভয়ংকর।

পুলিশ তদন্তের স্বার্থে ও বাকি আসামিদের ধরতে অনেক বিষয়ে কথা বলতে নারাজ।