রিয়াজ ইনসান এর কবিতা ‘বেপরোয়া হোমো’

বেপরোয়া হোমো

মাংশাটে গালে দাড়ি গোফে
বিশ্বাসী জীব হয়ে মানুষ রুপে,
ডুবে আছো যুবকরাম গভীর রক্তকূপে
মানবতা মরছে হায় নিরব ধুকে ধুকে।

উগ্রবাদীতার হানাহানির করাল ঘাতে
রক্তপাতে ভিজা মাটি, জল নাই জল কূপে,
নদী-সাগর, পাহাড় জিম্মি দানবীয় অপ-শক্তিতে
হোমো সেপিয়েন্সরা আছো কিছু অনিয়ম ধারাতে।

অপরের চোখ কি তোমারি মত কদরের নয়?
অপরের বুক, হাত-পা, দেহ কি তোমারি মত রক্ত মাংশের নয়?
তোমার তেলতিলে দেহ-ই কি আঘাতে যন্ত্রনাময়?
অন্যের দেহে তবে কেমন করে সয়!

ধর্মের নামে অধর্ম উগ্রবাদীতায়
রাজনীতির নামে অপরাজনীতির ধারায়,
পার্থিবতার মোহটানে আপন পক্ষপাতীতায়
কি পেয়েছো হে মানুষ এই ভবের দূনিয়ায়!

স্বার্থবাদী, গোষ্ঠীবাদী, লিঙ্গবাদী, গোত্রবাদী
যতসব অমানবিক মদদতায়-
মানবতা, স্বাধীনতা, জান-মালের নিরাপত্তা
আজ কঠিন বিপর্যস্ততায়।

পাশবিক আচরণে মানবতার ধ্বংসস্তূপে
মানুষ হয়ে মানুষকে হত্যার অধিকার নাই,
একের জীবনের মালিকানা অন্য কারোর নাই
জান-মাল দূনিয়ার মালিক কেবল মহান স্রষ্টাই।