লাবণীর পাশে আমরা । মিতা চৌধুরী

  •  
  •  
  •  
  •  

মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য…
এ কথাটা আমরা মানুষ হিসেবে বহুবার প্রমান করেছি। আমি আজ আপনাদের সবার কাছে এই মহান কথা’টি নিয়ে আবারো এসেছি।

লাবণী আপা, আমাদের মেলবোর্ন কমিউনির নিবেদিত সদস্য সজিব ভাইয়ের বোন! লাবণী আপা আমাদেরই বোন, একজন স্বামীর প্রিয়তমা, বাবা-মায়ের রাজকন্যা আর তার সন্তানদের পুরোটা পৃথিবী। কিছুদিন আগেও লাবনী আপার জীবনটা ছিল আর দশটি মানুষের মতো স্বপ্নের হাসিতে প্রাণে প্রাণবন্ত , কিন্তু হঠাৎই যেন সব ওলোট পালট হয়ে গেলো। লাবনী আপার দুই কন্যা হৃদি আর রায়ার জীবনের হাসি যেন হঠাৎই আশংকায় রূপ নিলো, তাদের মা কি পারবে সামনের দিনগুলোতে ঠিক এভাবেই তাদের সঙ্গে হাসি খেলায় যোগ দিতে?
হঠাৎ শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে লাবনী আপা যখন ডাক্তারের শরণাপন্ন হলেন জানতে পারলেন তিনি মরণ ব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। যা অতি বিরল রোগ- টিসেল লিকোমিয়া। বাংলাদেশেই জরুরী ভিত্তিতে  শুরু করা হয় এর চিকিৎসা কিন্তু যেহেতু রোগটি অত্যন্ত বিরল তাই বাংলাদেশে যথাযথ ট্রিটমেন্ট সম্ভব হচ্ছিলোনা।

স্বামী ও দুই কন্যার সঙ্গে লাবণী।

বাংলাদেশের ডাক্তারদের পরামর্শেই লাবণী আপাকে নিয়ে যাওয়া হয় ইন্ডিয়ার মুম্বাইতে। সেখানে ফোর্টিস হাসপাতালের প্রসিদ্ধ ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ ডাঃ সুরেশ আদভানির পরামর্শ নেন। সেখানে আরো কিছু পরীক্ষার পর ডাঃ সুরেশ আদভানি লাবনী আপার চিকিৎসা শুরু করেন কিন্তু এর চিকিৎসা শুধুই ব্যায়বহুল নয়, এককথায় হয়তো আকাশচুম্বি। চিকিৎসার জন্য যে মূল ওষুধটি লাগবে তার নাম “আলেমটুজুমাব” যার সাপ্তাহিক খরচ পরবে বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ২৩ লাখ টাকা। আর পুরো চিকৎসাটি চালিয়ে নিতে খরচ পরবে প্রায় ৮কোটি টাকা। স্বাভাবিক ভাবেই যা একটি মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য অসম্ভব।

প্রিয় ভাই ও বোনেরা সবাই, আমরা একটু হাত বাড়িয়ে দিলেই পারি লাবনী আপাকে তার সন্তানদের কাছে, তার ভালোবাসার মানুষগুলোর কাছে ফিরেয়ে আনতে এই অনিশ্চয়তা থেকে। আপনার আমার আমাদের সকলের একটু সাহায্যের হাত মিলেই কিন্তু একটা বিশাল কিছু যার শক্তি অনেক বিশাল। আর মানুষ হিসেবে এরচেয়ে পরম পাওয়া আর কি আছে, কাউকে তার প্রিয়জনের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার চেয়ে। ইতিমধেই আমরা ব্যাপক সাড়া পেয়েছি সকল হৃদয়বান মানুষের কাছ থেকে। মেলবোর্নে লাবণী আপার জন্য খোলা হয়েছে ‘গো ফান্ড মি’ একাউন্ট, যেখানে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকেই যে কেউ চাইলেই ডোনেশন করতে পারবেন। এছাড়াও মেলবোর্ন থেকে শীঘ্রই আয়োজন করা হচ্ছে “অনলাইন আর্ট অকশন” যেখানে বিক্রি হওয়া ছবির বা শিল্পকর্মের সবটুকু যাবে লাবণী আপার চিকিৎসা ফান্ডে।

তাই আসুন, আমরা লাবণী ও তার পরিবারের পাশে দাঁড়াই। লাবণীকে বাংলাদেশে সাহায্য পাঠাতে পারেন এই ঠিকানায়: জনতা ব্যাংক লিমিটেড, অ্যাকাউন্ট নম্বর : ২৩৫৬৫০৬, মোহাম্মদপুর ব্রাঞ্চ, অ্যাকাউন্ট নাম : ডা. মো. বদিউজ্জামান (লাবণীর খালু)। লাবণীকে বিকাশ করতে পারেন নাম : মো. বদিউজ্জামান (লাবণীর খালু), নম্বর : ০১৭৭৮৮৬৮৭০৯। নাফিসা শামীম হৃদি (লাবণীর বড় মেয়ে), নম্বর : ০১৭৩০৮৩৭৭৯৩। অথবা যদি সরাসরি আপনার ডোনেশন পৌঁছাতে চান তবে এই একাউন্টে ট্রানফার করতে পারেন:

Account name: Laila Talukder
Bank: Commonwealth Bank of Australia
BSB: 063791
Account: 11803067
Reference: For Laboni

আমরাই পারবো, জানি আপনারা সকলেই আছেন লাবনী আপার পাশে, তার সন্তানদের পাশে। আসুন আমরা ছোট্ট হৃদি আর রায়ার স্নেহময়ী মা’কে তাদের কাছে ফিরিয়ে দেই।  লাবনী আপার জন্য তাঁর বন্ধু ও শুভাকাঙ্খীরা একটি পেইজ খুলেছে ফেসবুকে Help-Laboni-Survive-Her-Battle-with-Leukemia-TPLL যেখানে লাবনী আপার চিকিৎসার ও তার এই ফান্ড কলেকশনের অগ্রগতি জানতে পারবেন।

লিংকে লাবনী আপার জন্য ‘গো ফান্ড মি’ যে ফান্ড রেইজ করা হচ্ছে তার অ্যাকাউন্ট দেয়া আছে, যেখানে আপনারা যে কেউ যে কোনো জায়গা থেকে ফান্ড ট্রান্সফার করতে পারবেন । আপানাদের সকলের সহযোগিতা কামনা করছি, আমরা করবো জয় নিশ্চয়… .

https://www.gofundme.com/f/helpingLaboni?utm_source=facebook&utm_medium=social&utm_campaign=p_cp+share-sheet&fbclid=IwAR2-rPvG0G6qHIVURZ8nr_I9c64yJsUzulJ1CzM1EYwxlcyFcLFZTwFOq8U

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments