শনিবার সিডনিতে ওপেন এয়ার কনসার্ট: মঞ্চ মাতাবেন সোলস্, ওয়ারফেজ, ঐশি সহ এক ঝাঁক তারকা

  •  
  •  
  •  
  •  

আরিফুর রহমান, সিডনি: এই মুহুর্তে সিডনি ভরপুর করছে বাংলাদেশ থেকে আগত সব তারকাদের পদভারে। জনপ্রিয়তম ব্যান্ডদল সোলস্ ও ওয়ারফেজের পুরো ব্যান্ড, জনপ্রিয় শিল্পী ফাতেমা তুজ জোহরা ঐশি, কমেডিয়ান এবং মীরাক্কেল জয়ী তারকা আবু হেনা রনি ও জামিল হোসেন। সম্ভবত অস্ট্রেলিয়ায় এই প্রথম ওপেন এয়ার কনসার্টে বাংলাদেশ থেকে এক ঝাঁক তারকা ও সিডনির স্থানীয় শিল্পীরা অংশ নেবেন। বহুল প্রতীক্ষীত এই কনসার্টটা হতে যাচ্ছে ২২ ডিসেম্বর শনিবার সিডনির বেলমোর বুলডগ্স স্টেডিয়ামে। বিজয় দিবস কনসার্ট ২০১৮ নামে এই কনসার্টটির আয়োজক গ্রীনফিল্ড এন্টারটেইনমেন্ট।

লাকেম্বার গ্রামীণ রেস্টুরেন্টে ওয়ারফেজ’র সঙ্গে আড্ডা

ওয়ারফেজের নাম শুনলেই বুকের ভেতরে জমে থাকা কষ্টের বা ভালবাসার সুর শুনতে পাই। যেমন করে শোনায় ওয়ারফেজ, “সেদিন ভোরে বুকের গভীরে/ শুনেছি জমে থাকা নীল বেদনার ডাকে/ এই শহরে ইটের পাহাড়ে/ ছিলনা কেউ যে বেদনার প্রেয়না”।
সত্যি তো আমাদের যে এই শহরের অন্দরে বন্দরে কেউ নেই প্রেরণা দেবার। বিদেশ বিভূঁইয়ে আমাদের একাকীত্ব মুহূর্ত গুলো হারিয়ে যেতে বা পালিয়ে যেতে ইচ্ছে করে অন্য এক ভূবনে।সেই প্রেরণা বা মনের ভেতরে কিছুক্ষনের জন্য হারিয়ে যাবার জন্য সুবর্ন সুযোগ করে দিয়েছে বিজয় দিবস কনসার্ট। কালসন্ধ্যায় লাকেম্বার গ্রামীণে প্রশান্তিকার সাথে আলাপচারিতায় এমন প্রেরণার কথাই শোনালেন ওয়ারফেজের শিল্পীরা।

সিডনির আকাশে কারনে অকারনে শুরু হয় ঝুম বৃষ্টি ।বৃষ্টি ভেজা অলস বিকেলে মন কাটেনা ঘরে।মাঝে মাঝে প্রিয়জনের ছোয়াও মেঘে ঢাকা আকাশের মতো লাগে।কখনও কখনও বুকের জমানো কষ্টে ভিজে যায় চোখ।যদিও আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে শনিবার দিনটি হবে ঝরঝরে রোদ্দুরের দিন। তবু যদি সোলসের পার্থ গেয়ে উঠেন, “বৃষ্টি দেখে অনেক কেঁদেছি/ করেছি কতই আর্তনাদ/ দুচোখে জলে ভাসাবো বলে/ তোমাকে আজ কাদাবো বলে।” অবাক হবেনা দর্শক শ্রোতা।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে স্বদেশবার্তার প্রধান সম্পাদক ফয়সাল আজাদ প্রশান্তিকাকে জানান, সিডনিতে ওপেন এয়ার কনসার্ট ঘোষণার পরপরই প্রবাসী বাংলাদেশীদের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ দেখা যায়। টিকেটও বিক্রি হচ্ছে আশানুরুপ। অনুষ্ঠানে ঘোষিত সব শিল্পী, মিউজিশিয়ান ও কলাকুশলীরা সিডনিতে আসার পর হুহু করে বিক্রি বাড়ছে। এরপরও স্টেডিয়াম গেটে দর্শকরেরা টিকেট সংগ্রহ করতে পারবেন। তিনি আরো জানান, ১২ বছরের নীচে শিশুদের কোন টিকেট লাগবেনা।

জনপ্রিয় শিল্পী পার্থের নেতৃত্বে সোলস কে সিডনি এয়ারপোর্টে স্বাগত জানাচ্ছে আয়োজকেরা

গতকাল সিডনিতে ল্যান্ড করেই শিল্পীরা আজ সিডনির বিভিন্ন নিদর্শনে ঘুরতে বের হয়েছেন। এরমধ্যে জনপ্রিয় ব্যান্ড ওয়ারফেজ ব্রিসবেন ও মেলবোর্নে শো করে সিডনি পৌঁছেছেন। প্রশান্তিকার সঙ্গে এক আলাপচারিতায় ওয়ারফেজের শিল্পীরা বলেন, সিডনির এই শো হবে তাদের এবছরের সেরা শো। তিনি আশা করেন, তারুন্যের উল্লাসে স্টেডিয়াম কেঁপে উঠবে। সোলস্ ব্যান্ডের প্রধান পার্থ বলেন, এর আগে সিডনিতে বেশ ক’বার শো করে গেছি। এবার ওপেন এয়ার কনসার্টটা প্রবাসে নতুন ফ্লেভার দেবে। আশা করি ঢাকার ওপেন এয়ার কনসার্টগুলোর মতোই আমরা মেতে উঠতে পারবো এবং দর্শকদের আনন্দ দিতে পারবো।

প্রজন্মের জনপ্রিয় শিল্পী ঐশি প্রশান্তিকাকে জানান, ‘ আমি এই প্রথম অস্ট্রেলিয়া এসেছি। সমরিতা হসপিটাল ও মেডিকেল কলেজে ৪র্থ বর্ষে পড়াশুনা করছি। ঢাকার অনুষ্ঠান ও পড়াশুনার চাপ সামলিয়ে এখানে আসাটা আমার জন্য চ্যালেঞ্জ। তবে যে মুহূর্তে সিডনিতে পা ফেলেছি, শান্ত নিরিবিলি একটা শহরের স্পর্শ পেয়েছি। এখানকার বাংলাদেশীদের ব্যবহার ও আপ্যায়নে আমরা সত্যিই মুগ্ধ।’ তিনিও আশা করেন শনিবারের কনসার্টে বিপুল সংখ্যক দর্শকের সমাগম হবে।

অভিনেতা ও গায়ক জামিল হোসেন বিভিন্ন কনসার্ট উপস্থাপনার পাশাপাশি নাটকে অভিনয় করছেন।জামিল হোসেন বলেন, ‘বিদেশের মাটিতে আয়োজনে অংশ নিতে পেরে খুব ভালো লাগছে। প্রবাসীরা দেশকে খুব মিস করেন। সেখানে বসবাস করলেও মনটা দেশেই পড়ে থাকে। তাদের জন্য এমন একটি উদ্যোগ সত্যি প্রশংসনীয়।’ মঞ্চে দমফাটানো হাসির গল্প নিয়ে মাতাবেন মীরাক্কেল চ্যাম্পিয়ন কথক ও গায়ক আবু হেনা রনি। সিডনি আসার আগে তিনি তার ফেসবুকে মজা করে বলেন, ‘রনি, দেশ ছাড়িয়ে বিশ্বে রপ্তানীতে শীর্ষে।’ কমেডির পাশাপাশি তিনি চমৎকার গানও শোনাবেন।

আয়োজক ফয়সাল আজাদ জানান, বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পীদের পাশাপাশি আমাদের স্থানীয় শিল্পীরাও অংশ নেবেন। এরা হলেন তানিশা ফেরদৌস, হাবিব রহমান, ডিজে সায়েম, মেহেদী হাসান, যোদ্ধা ব্যান্ড এবং ল্যাকেম্বা বাংলা স্কুল। অনুষ্ঠান উপাস্থাপনা করবেন জামিল হোসেন ও সিডনিবাসী তানিশা।

অনুষ্ঠানটির টাইটেল স্পন্সর করেছে গ্লোবাল একাউন্টিং এন্ড ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস। ইভেন্টস এন টিকেটের মাধ্যমে টিকেট সংগ্রহ করা যাবে। এছাড়া লাকেম্বা, রকডেল সহ অন্যান্য বাংলাদেশী অধ্যুসিত এলাকায় দোকান ও রেস্টুরেন্টে পাওয়া যাচ্ছে।
আয়োজকেরা আরো জানান, দর্শকদের লাকেম্বা, ওয়ালি পার্ক, পাঞ্চবোল স্টেশন থেকে সাটল বাসের মাধ্যমে ভেন্যুতে নিয়ে আসার ব্যবস্থা রয়েছে। অনুষ্ঠান চলবে শনিবার দুপুর ২টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত।

জনপ্রিয় শিল্পী ঐশি, জামিল, রনি ও অন্যরা সিডনি ঘুরছেন

শুধু আয়োজক নয় লাকেম্বার অনেক বাংলাদেশী মনে করেন, এতো বড় কনসার্ট সিডনিতে এই প্রথম। আমরা প্রশান্তিকার পক্ষ থেকে অসংখ্য ধন্যবাদ ও ভালোবাসা জানাই কনসার্টের আয়োজক মিরাজ ভাই, ফয়সাল আজাদ ভাই এবং এনাম ভাইকে। মিডিয়া পার্টনার হিসেবে প্রশান্তিকা রয়েছে এর সঙ্গে।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments