শুরু হলো ‘সিডনি বাঙ্গালী বুটিক ক্লাব’র পথচলা

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশান্তিকা ডেস্ক: সিডনির দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের বাংলাদেশী অধ্যুসিত ক্যাম্বেলটাউনের কয়েকটি সাবার্ব এবং এর বাইরের নারী উদ্যোক্তাদের সমন্বয়ে গড়ে উঠলো একটি বুটিক ক্লাব। আজ ১৩ জুন সিডনির ক্যাসুলার ‘লা মনো কাবাব’ হাউজে সিডনির নামকরা চল্লিশটি বাঙ্গালী উদ্যোক্তাদের তৈরী বুটিক হাউজের সমন্বয়ে গঠিত হয় ‘সিডনি বাঙ্গালী বুটিক ক্লাব’।

সিডনিতে ৪০টি বুটিক হাউজের সমন্বয়ে গড়ে উঠেছে সিডনি বাঙ্গালী বুটিক ক্লাব।

আগামী ৪ এবং ১৮ জুলাই রবিবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে সিডনির অন্যতম বৃহত্তম ঈদ এক্সিবিশন ইঙ্গেলবার্ন কমিউনিটি হলে। আর এই এক্সিবিশনটি চলবে সকাল ১১টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত সম্পূর্ণ কোভিড-১৯ এর নিয়ম মেনে। এই উপলক্ষ্যে এই বুটিক ক্লাবের অন্যতম উদ্যোক্তা সিডনি বাঙ্গালী কমিউনিটির পক্ষ থেকে সেলিমা বেগম উপস্থিত বুটিক হাউজগুলোকে কেন একটা ক্লাবের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে সেই বিষয়ে আলোকপাত করেন। সেলিমা বলেন, “সিডনির সবকয়টি বুটিক হাউজগুলো চালাচ্ছেন নারী উদ্যোক্তারা এবং তাদের বেশিরভাগের কোন শো রুম বা বিক্রয় কেন্দ্র নাই, তাই তারা বাসায় বসেই বিভিন্ন দেশীয় শাড়ি, সালোয়ার কামিজ, পায়জামা পাঞ্জাবী, বিভিন্ন নকশার দেশীয় উপমহাদেশীয় পণ্য ( স্যান্ডেল, ব্যাগ ) এবং নানান ধরণের অলংকার সামগ্রীর ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। মূলতঃ নারী উদ্যোক্তারা যেনো একটি প্লাটফর্মে এসে তাদের সমস্যাগুলো শেয়ার করতে পারেন এবং একে অপরকে সাহায্য সহযোগিতা করতে পারেন তাই এই ক্লাবের উদ্দেশ্য। এছাড়াও ক্লাব থাকলে বড় বড় ইভেন্টে অংশ গ্রহণের ক্ষেত্রেও ভবিষ্যতে বিশেষ সুবিধা পাওয়া যেতে পারে বলে তিনি মনে করেন।” উল্লেখ্য, সিডনি বাঙ্গালী কমিউনিটির আয়োজনে যে সমস্ত এক্সিবিশন অনুষ্ঠিত হবে এবং অন্যান্য মেলা / এক্সিবিশনে অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে ক্লাবের সদস্যরা অগ্রাধিকার পাবেন বলে সেলিমা বেগম ঘোষণা করেন।

আলোচনা পর্বে বুটিক ক্লাবের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে কয়েকটি বুটিক হাউজ তাদের মতামত তুলে ধরেন। আলোচনা পর্ব শেষ হলে, মধাহ্ন ভোজের পর ৪০টি বুটিক হাউজ ক্লাবের সদস্যরা ফর্ম স্বাক্ষর করেন। অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে বাঙালি নারী জাগরণে বেগম সুফিয়া কামালকে স্মরণ করে তাঁর জন্মদিন উপলক্ষ্যে কেক কাটা হয়।

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments