সিডনিতে আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে কনসার্ট ‘জন্মহীন নক্ষত্র’

  
    

মো. ইয়াকুব আলী : আইয়ুব বাচ্চু বাংলাদেশের সঙ্গীত জগতের এক কিংবদন্তির নাম। উনার গান সময়ের সীমাকে অতিক্রম করে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে বয়ে চলেছে। উনার অকাল মৃত্যুর পরও সেই ধারা অব্যাহত আছে তারই ধারাবাহিকতায় সিডনির সুপরিচিত ব্যান্ডট্রায়োআয়োজন করেছিলজন্মহীন নক্ষত্রশিরোনামের এক কনসার্ট ১৯শে নভেম্বর ২০২২, শনিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে দর্শকেরা ভীড় করতে থাকেন ক্যাম্বেলটাউন আর্টস সেন্টারে সেখানেই সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলে এই আয়োজন । 

এই আয়োজনকে নিখুঁত করতেট্রায়োদীর্ঘদিন ধরে নিজেদের তৈরি করছিলো। তাঁদের ব্যান্ডের প্রত্যেকটা সদস্য নিজেদের সবটুকু তাদেরমিউজিক্যাল গুরু জন্য নিজেদের তৈরি করে ভোকাল মারুফ হোসেন থেকে শুরু করে ড্রামার আহসানুর রহমান, গিটারিস্ট ইফতেখার আলম, লিড গিটারিস্ট তপন ডিকস্টা, বেজ গিটারিস্ট আহসানুল হাদি এবং কিবোর্ডে এহসান বাশা শানিয়ে নেন নিজেদের পাশাপাশি মঞ্চের সজ্জা এবং ভিডিওগ্রাফির কাজ এগিয়ে যান মোর্শেদ নাসের যিনি দীর্ঘদিন আইয়ুব বাচ্চুর সাথে কাজ করেছেন । 

এভাবেই ক্যাম্বেলটাউন আর্টস সেন্টারের অডিটোরিয়ামে আরেকবার যেন মূর্ত হয়ে উঠেন আইয়ুব বাচ্চু ব্যান্ডের পরিবেশনা এবং গানের উপযোগী মঞ্চের সজ্জা শ্রোতাদের কিছু সময়ের জন্য হলেওনস্টালজিক করে দেয় কারণ প্রত্যেকেরই কোন না কোন স্মৃতি আছে এই ম্যাস্টেরিওর গানের সাথে তারা দর্শক সারি থেকে নেমে এসেব্যান্ডের সাথে গলা মেলাতে শুরু করেন অনেকেই উত্তেজনায় নাচতেও শুরু করেন

এই আয়োজনকে সামনে রেখেট্রায়োপ্রকাশ করেজন্মহীন নক্ষত্রশিরোনামের চার রঙা একটি স্মরণিকা সেখানে আইয়ুব বাচ্চুর পুরোমিউজিক্যাল জার্নির উপর আলোকপাত করা হয় ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামের পটিয়াতে জন্ম নেয়া এক বালক কিভাবে বাংলাদেশের ব্যান্ডের এবি হয়ে উঠেন আছে তার বিবরণ আছে বেশকিছু দুর্লভ আলোকচিত্র সেখানে আরও স্থান পেয়েছে তাদের গুরু এবিকে নিয়েট্রায়োব্যান্ডের প্রত্যেক সদস্যের স্মৃতিচারণ

আইয়ুব বাচ্চু যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকবেন তাঁর শ্রোতাদের হৃদয়ে, তাঁর মিউজিক্যাল শিষ্যদের কাজের মধ্যে সিডনিবাসি বাংলা ভাষাভাষীরাট্রায়ো এই আয়োজনের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং এই ধারা অব্যাহত থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন এই আয়োজনের সঙ্গী ছিলেন আইকন হেলথ কেয়ার সেন্টার, নর্থ রিচমন্ড ফ্যামিলি মেজিকেল প্রাকটিস, অরোরা মেডিকেল সেন্টার, ডাঃ শাকিল আহমেদ প্রাইভেট লিমিটেড, অপরাজিতা ফ্যামিলি ট্রাস্ট, ডিভাইন হোমস, কিডজটাইল, সুইফট এন্ড ইজি ড্রাইভিং স্কুল এবং ব্যাচমায়েরএকাউন্টিং আর পুরো আয়জনের ভিডিওগ্রাফির দায়িত্বে ছিলেন নাসের ফটোগ্রাফিকস

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments