সিডনিতে জন্মভূমি টেলিভিশনের ৫ম বার্ষিকী উদযাপন ও সম্মাননা প্রদান

  •  
  •  
  •  
  •  

 312 views

প্রশান্তিকা রিপোর্ট: অস্ট্রেলিয়ার ২৪ ঘন্টার বাংলা টেলিভিশন ‘জন্মভূমি’ তাদের ৫ম বার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করে। এ উপলক্ষে জন্মভূমি টিভি গত ২৮ শে মার্চে সিডনির জনপ্রিয় ভেন্যু রকডেলের রেডরোজ ফাংশন সেন্টারে এক জাঁকজমক বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান, পদক প্রদান ও গালা ডিনারের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানের শুরুতে জন্মভূমি টিভি’র চেয়ারম্যান আবু রেজা আরেফিন এবং সিইও রাহেলা আরেফিন সমাগত অতিথিদের স্বাগত জানান।

জন্মভূমি টেলিভিশনের পঞ্চম বার্ষিকী ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে সমাগত অতিথিবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন জন্মভূমি টেলিভশনের ডিরেক্টর ফাইন্যান্স, সৈয়দ আকরাম উল্লাহ, বিশেষ অতিথি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সিডনি কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল খন্দকার মাসুদুল আলম, Hon Tony Burke MP, Member for Watson NSW ,Manager of Opposition Business ,Member of Australia Labor Party এবং Lindsay Wendy , Member of the Legislative Assembly  ,Member for East hills. তারপর বক্তব্য প্রদান করেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ইমিগ্রেশন মন্ত্রী Hon Philip Ruddock AO , Mayor Hornsby Shire. তাঁর বক্তব্যে তিনি অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশী অভিবাসীদের ভূয়শী প্রশংসা করেন। অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ বিসনেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান আসিফ কাউনাইন, প্রভাত ফেরী পত্রিকার প্রধান সম্পাদক শ্রাবন্তী কাজী, বাংলাদেশ সরকারের সাবেক অনারারি কনসাল জেনারেল এন্থনি খৌরি এবং ডা. শায়লা ইসলাম প্রমুখ স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

জন্মভূমি টেলিভিশনের চেয়ারম্যান আবু রেজা আরেফিন এবং সিইও রাহেলা আরেফিন।

মঞ্চের পর্দা উঠেছে অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে। জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনা করেন আদ্রিতা ,আনান , রোকসানা রহমান ,নাবিলা স্রোতস্বিনী, হৃদসি ,আবিদা ও সামা। এরপরেই জনপ্রিয় দেশের গান ‘সূর্যোদয়ে তুমি, সুর্যাস্তে তুমি’ এর সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেন সাদিয়া ও সারিয়া। হৃদয়গ্রাহী কবিতা আবৃত্তি করে শোনান নুসরাত জাহান স্মৃতি। এরপর হৃদয়ে আমার বাংলাদেশ গানের সঙ্গে নাচ পরিবেশন করেন শিশুশিল্পী আদ্রিতা। সিডনিপ্রবাসী জনপ্রিয় শিল্পী নাবিলা স্রোতস্বীনি এরপর ‘সব ক’টা জানালা খুলে দাওনা’ গানটি শোনান। গান শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দর্শকেরা মুহূর্মুহ করতালি দিয়ে নাবিলাকে অভিবাদন জানান। এরপর আগুনের পরশমনি গানটি পরিবেশন করেন রোকসানা রহমান, সামা ও আবিদা।
অনুষ্ঠানের এই পর্যায়ে সম্মানীয় অতিথিরা শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন এবং ৭টি ক্যাটাগরিতে জন্মভূমি ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পদক প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল খন্দকার মাসুদুল আলম, অস্ট্রেলিয়ার সাবেক মন্ত্রী ফিলিপ রাডক, ফেডারেল এমপি টনি বার্ক, স্থানীয় এমপি লিন্ডসে ওয়েন্ডি।

দৃষ্টিনন্দন নাচ পরিবেশন করেন রোদেশী। এরপর মঞ্চে আসেন সিডনির গানের পাখি খ্যাত রোকসানা রহমান এবং তাঁর সাথী আনিসুর রহমান। তারা যুগলকন্ঠে গেয়ে শোনান পৃথিবীর যতো সুখ গানটি। এরপর মনোমুগ্ধকর নাচ পরিবেশন করেন প্রখ্যাত নৃত্যশিল্পী অর্পিতা সোম।

মা নুসরাত জাহান স্মৃতির কন্ঠে আবৃত্তি এবং মেয়ে স্রোতস্বিনী নাবিলার কন্ঠে গান সবাইকে মুগ্ধ করে।

নজরুল সঙ্গীত নিয়ে মঞ্চে আসেন শিল্পী অমিয়া মতিন। কৌতুক নাটিকা পরিবেশন করেন ডাঃ মীর জাহান মাজু ও ডাঃ ফাহিমা সাত্তার। এরপর আজ এই বৃষ্টির কান্না দেখে গানটি গেয়ে শোনান জনপ্রিয় শিল্পী জিয়াউল ইসলাম তমাল। সিডনির জনপ্রিয় শিল্পী দম্পতি আতিক হেলাল ও মিতা আতিক গান পরিবেশন করেন। শিল্পী সাজ্জাদ হোসেনের গান ছিলো অনুষ্ঠানের শেষ নিবেদন। এরপর জন্মভূমির ৫ম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে কেক কাটা হয়।

অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করেন অর্পিতা সোম

জন্মভূমি সম্মাননা: স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং জন্মভূমি টিভির পঞ্চম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে মোট ৭টি ক্যাটাগরি: বিশেষ সম্মাননা, আলোকিত শিক্ষাবিদ, আলোকিত সমাজসেবক, আলোকিত ব্যবসায়ী উদ্যোক্তা, আলোকিত সাংবাদিক, আলোকিত সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, আলোকিত পেশাজীবী বিভাগে মোট ১২জনকে পুরস্কার ও সম্মাননা প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে গান গাইছেন জনপ্রিয় শিল্পী দম্পতি আনিসুর রহমান ও রোকসানা রহমান।

বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে জন্মভূমি  টেলিভিশনের “জন্মভূমি বিশেষ সম্মাননা পদক ২০২১” মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক হিসাবে মরহুম রফিক উল্যাহ মাস্টারকে মরণোত্তর সম্মামনা প্রদান করা হয়। পদকটি গ্রহণ করেন তার পুত্র সিডনিবাসী আশরাফ হক। মহান মুক্তিযুদ্ধে সম্মুখ সমরের যোদ্ধা রেজাউর রহমানকে মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে “জন্মভূমি বিশেষ সম্মামনা পদক ২০২১” প্রদান করা হয়। দুটি পদক তুলে দেন কনসাল জেনারেল খন্দকার মাসুদুল আলম।

“জন্মভূমি বিশেষ সম্মাননা পদক ২০২১” মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক হিসাবে মরহুম রফিক উল্যাহ মাস্টারকে মরণোত্তর সম্মামনা প্রদান করা হয়। পদকটি গ্রহণ করেন তার পুত্র সিডনিবাসী আশরাফ হক।

মাননীয় ফেডারেল এমপি টনি বার্ক প্রবাসে আলোকিত শিক্ষাবিদ হিসাবে “জন্মভূমি সম্মামনা পদক ২০২১” তুলে দেন ডঃ কাইউম পারভেজ এর হাতে এবং আলোকিত নারী শিক্ষাবিদ হিসাবে  “জন্মভূমি সম্মামনা পদক ২০২১” তুলে দেন ডঃ মমতা চৌধুরীর হাতে।

ফেডারেল এমপি টনি বার্কের হাত থেকে আলোকিত শিক্ষাবিদ ব্যক্তিত্ব সম্মাননা গ্রহন করেন ড. কাইউম পারভেজ।

এরপর লিবারেল পার্টির মাননীয় এমপি লিন্ডসে ওয়েন্ডি Lindsay Wendy আলোকিত সমাজসেবক হিসাবে “জন্মভূমি সম্মামনা পদক ২০২১” তুলে দেন সাবেক কাউন্সিলর রাজনীতিবিদ মোহাম্মদ শাহে জামান টিটুর হাতে। সাবেক মন্ত্রী ও মাননীয় মেয়র ফিলিপ রাডোক আলোকিত ব্যবসায়ী উদ্যোক্তা হিসাবে “জন্মভূমি সম্মামনা পদক ২০২১” তুলে দেন Teleaus এর সিইও  জাহাঙ্গীর আলমের হাতে এবং প্রবাসে আলোকিত নারী ব্যবসায়ী উদ্যোক্তা হিসাবে “ জন্মভূমি সম্মামনা ২০২১”  তুলে দেন ইয়াসমিন আনোয়ারের হাতে।

প্রভাত ফেরী সম্পাদক শ্রাবন্তী কাজীর হাত থেকে জন্মভূমি আলোকিত সাংবাদিক ব্যক্তিত্ব পদক গ্রহন করেন প্রশান্তিকা সম্পাদক আতিকুর রহমান শুভ

এরপর মঞ্চে আসেন প্রভাত ফেরির প্রধান সম্পাদক শ্রাবন্তী কাজী। তিনি প্রবাসে আলোকিত সাংবাদিক হিসাবে “ জন্মভূমি সম্মাননা পদক ২০২১” তুলে দেন প্রশান্তিকার সম্পাদক আতিকুর রহমান শুভ’র হাতে। এছাড়াও তিনি প্রবাসে আলোকিত নারী সাংবাদিক হিসাবে “জন্মভূমি সম্মাননা পদক ২০২১” তুলে দেন কাজী সুলতানা শিমির হাতে।

আলোকিত নারী সাংবাদিক ব্যক্তিত্ব সম্মাননা গ্রহন করেন কাজী সুলতানা শিমি।

অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ বিসনেস কাউন্সিলের চেয়ারমযান আসিফ কাউনাইনের হাত থেকে প্রবাসে আলোকিত সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হিসাবে “জন্মভূমি সম্মামনা পদক ২০২১” গ্রহণ করেন শাহীন শাহনেওয়াজ। প্রবাসে আলোকিত নারী সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব হিসাবে নাম ঘোষণা করা হয় মরহুমা শারমিন পাপিয়াকে। তার পক্ষে তার স্বামী হায়দার বাবু ” জন্মভূমি সম্মামনা পদক ২০২১”( মরণত্তোর ) গ্রহণ করেন।

জন্মভূমি আলোকিত পেশাজীবী ব্যক্তিত্ব সম্মাননা গ্রহন করছেন ডা. নাহিদ সায়মা।

গণপ্রজনতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক অনারারি কনসাল জেনারেল এন্থনি খৌরি প্রবাসে আলোকিত পেশাজীবী হিসাবে “জন্মভূমি সম্মামনা পদক ২০২১”  তুলে দেন ডাক্তার একরামুল হক চৌধুরীর হাতে। এরপর ডাক্তার শায়লা ইসলাম আলোকিত নারী পেশাজীবী হিসাবে “জন্মভূমি সম্মাননা পদক ২০২১” তুলে দেন ডাক্তার নাহিদ সায়মার হাতে।

জন্মভূমি টেলিভিশনের এই আয়োজনের সম্মানিত স্পনসরদের হাতে স্পনসর অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন জন্মভূমি টেলিভিশনের চেয়ারম্যান আবু রেজা আরেফিন। পরে তিনি জন্মভূমি টিমকে পরিচয় করিয়ে দেন। এছাড়াও তিনি অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত সম্মানিত সাংবাদিকবৃন্দকে মঞ্চে আসতে অনুরোধ করেন এবং তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। এসময় মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন সিডনির দু’টি সাংবাদিক সংগঠনের সভাপতি রহমতউল্লাহ এবং সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মাদ আব্দুল মতিন, আরও সঙ্গে ছিলেন সিডনি থেকে প্রকাশিত ও প্রচারিত প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও ডিজিটাল মিডিয়ার সম্পাদক, পরিচালক ও সাংবাদিক এবং বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত ও প্রচারিত গণমাধ্যমের অস্ট্রেলিয়া প্রতিনিধিরা।

সিডনি প্রবাসী প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সম্পাদক, সাংবাদিক নেতা, সাংবাদিক এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন মিডিয়ার প্রতিনিধিরা।

আমন্ত্রিত অতিথিদের নৈশ ভোজে আমন্ত্রণ জানানো হয়। জন্মভূমি টেলিভিশনের ৫ বছরে পদার্পন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানটি উপাস্থাপনা করেন নুসরাত জাহান স্মৃতি ও নুরুন্নাহার ফাহমি। সার্বিক সঞ্চালনের দায়িত্বে ছিলেন আবিদা আসওয়াদ, ডিরেক্টর প্রোগ্রাম জন্মভূমি টেলিভিশন। মঞ্চসজ্জা করেছেন জন্মভূমি টেলিভিশনের ডিরেক্টর ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কানিতা আহমেদ, শব্দ সঞ্চালনায় ছিলেন বেলায়েত রবিন ডিরেক্টর টেকনিক্যাল জন্মভূমি টেলিভিশন, ভিডিও ধারণ কামাল মোস্তফা ও আসওয়াদ বাবু ডিরেক্টর প্রোটোকল জন্মভূমি টেলিভিশন, আলোকচিত্রে জাহাঙ্গীর। এছাড়া ম্যাগাজিন পরিকল্পনা ও ডিজাইন করেছেন শাখাওয়াত বাবু ডিরেক্টর প্রিন্টিং এন্ড পাবলিকেশান জন্মভূমি টেলিভিশন। অতিথি আপ্যায়ন ও হল ব্যবস্থাপনায় ছিলেন কাজী আলম রুবেল, ডিরেক্টর বিজনেস রিলেসন জন্মভূমি টেলিভিশন, ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর জন্মভূমি টেলিভিশন শিরিন আক্তার মুন্নি এবং সার্বিক ব্যাবস্থাপনায় ছিলেন রাহেলা আরেফিন, সিইও জন্মভূমি টেলিভিশন।

0 0 vote
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments