সিডনি এয়ারপোর্টে বাংলাদেশী যাত্রীর মাধ্যমে হাম ছড়িয়ে পড়ার সতর্কতা

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রশান্তিকা ডেস্কএকজন হাম আক্রান্ত বাংলাদেশী যাত্রী গত ২৮ মে ক্যাথি প্যাসিফিক এয়ারলাইন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে সিডনি এসে পৌঁছায় এবং তার বিচরনের সকল এলাকায় হাম ছড়িয়ে পড়ার আশংকা এবং সতর্কতার নির্দেশ দিয়েছে নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের স্বাস্থ্য  বিভাগ। ৬ই জুন প্রকাশিত সিডনি মর্নিং হেরাল্ডের একটি রিপোর্টে বলা হয়আনুমানিক ৪০ বছর বয়সী এক বাংলাদেশী গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এয়ারলাইনের  CX139 ফ্লাইটে  টা ৪০ মিনিটে সিডনির ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরন করার পর তিনি ম্যাকার্থার লাইনে  ট্রেনে রাত  টা ১১ মিনিটে আরোহন করে এবং রাত টা ৫৮ মিনিটে লুইমিয়া স্টেশনে নেমে যায়। 

স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছেযারা লোকটির সাথে প্লেনে  ট্রেনে ভ্রমণ করেছে তাদের আগামী ২০ জুন পর্যন্ত সতর্ক থাকতে হবে। এমনকি এয়ারপোর্টের ব্যাগেজকাস্টমস এবং সংশ্লিষ্ট এলাকার স্টাফদেরও হাম আক্রান্ত বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। সংস্পর্শে আসার ১৮ দিনের মধ্যেও হামের লক্ষণ দেখা দিতে পারে।

নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যে  পর্যন্ত  শিশু সহ ৩৬ জন হামে আক্রান্ত হয়েছে। 

বাংলাদেশী ব্যক্তিকে বিশেষ পর্যবেক্ষনে রাখা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছেবাংলাদেশী ব্যক্তি যেসব এলাকায় চলাচল করেছেন সেসব এলাকা আশংকামুক্ত এবং নিরাপদ। অর্থ্যাৎ এখন আর সংক্রমনের সম্ভাবনা নেই। 

জ্বরকাশি সহ মাথা থেকে সারা গায়ে বড় বড় চাকার মতো লালচে ঘা দেখা দিলে বুঝতে হবে হাম হয়েছে।