স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে লাকেম্বায় যতো আয়োজন

  •  
  •  
  •  
  •  

 176 views

আরিফুর রহমান: সিডনির বাংলাদেশ খ্যাত লাকেম্বায় ফুলে ফুলে বানানো হয়েছে বাংলাদেশের অবয়ব বা মানচিত্র। গ্রামীণ রেস্টুরেন্টের কর্ণধার আশরাফ হোসেনের তত্বাবধানে নির্মিত হয়েছে এই অবয়ব। গতকাল রাত ১২ টার পর অর্থাৎ ২৬ শে মার্চের প্রথম প্রহর থেকেই এতে পুস্পস্তবক অর্পন শুরু হয়। চলবে আগামীকাল রাত ১২ টা পর্যন্ত। এভাবেই স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী শুরু হয়েছে লাকেম্বায়।

একটি একটি ফুল দিয়ে পুরো বাংলাদেশের অবয়ব তৈরি করছেন গ্রামীণের কর্ণধার আশরাফ হোসেন।

আয়োজকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আজ সন্ধ্যা ৭ টা থেকে অনুষ্ঠিত হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সিডনি প্রবাসী শিল্পীরা এখানে দেশের গান এবং কবিতা আবৃত্তি করবেন। দেশের গান অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করবেন নামিদ ফারহান। এছাড়া অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং শতকন্ঠে সোনার বাংলা বা জাতীয় সঙ্গীত।

শত কন্ঠে সোনার বাংলা: সিডনি প্রবাসী সংস্কৃতিজন ও সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম রুবেল এই অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। প্রশান্তিকাকে রুবেল বলেন, এবারও সন্ধ্যা ৭টার দিকে অনুষ্ঠানটি শুরু হবে। স্বাধীনতা দিবসে সূর্যাস্তের আগে, বুকে হাত দিয়ে, চোখ ভরা জল আর বুক ভরা ভালোবাসা নিয়ে বাংলাদেশ থেকে হাজার মাইল দূরে এই প্রশান্ত পাড়ে চিৎকার করে শত কণ্ঠে গাইবো জাতীয় সঙ্গীত, ” আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি “। তিনি আরো বলেন, শত কন্ঠে সোনার বাংলা সম্পূর্ণ নন-পলিটিকাল একটি আয়োজন। আপনার ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সাথে নিয়ে আসুন, জাতীয় সংগীতের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে। তিনি সবাইকে বাংলাদেশের পতাকার রঙ লাল- সবুজে সেজে আসতে অনুরোধ করেছেন। সঙ্গে জাতীয় পতাকা আনতে ভুলবেন না।

সুর্য ডোবার আগে সন্ধ্যায় শত কন্ঠে গেয়ে উঠবে ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের জাতীয় দিবস যেমন একুশে ফেব্রুয়ারি, বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস এমন কি পহেলা বৈশাখ হলেই ছোট্ট বাংলাদেশ খ্যাত লাকেম্বাকে সত্যিকারের রূপ দেবার চেষ্টা করেন প্রবাসী তরুণেরা। তাদের মধ্যে আশরাফ হোসেন অন্যতম।

0 0 vote
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments